৪ বছরের শিশু ধর্ষণকারী র‍্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত

কক্সবাজারের চকরিয়ায় চার বছরের শিশুকে ধর্ষণ মামলার আসামি রহিম উদ্দিন র‍্যাবের সঙ্গে বন্দুক যুদ্ধে নিহত হয়েছে। শনিবার রাত ১টার দিকে চকরিয়া উপজেলার ডুলাহাজারা ইউনিয়নের উলুবনিয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত রহিম উলুবনিয়া এলাকার বাসিন্দা।

র‌্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মেজর মো. রুহুল আমিন বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রাতে র‌্যাবের একটি দল উলুবনিয়া এলাকায় অভিযানে যায়। সেখানে অবস্থান করা সন্ত্রাসীরা র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি ছোড়ে। র‌্যাব সদস্যরাও তখন পাল্টা গুলি ছুড়লে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। এরপর সেখানে গুলিবিদ্ধ একজনের লাশ পাওয়া যায়। ঘটনাস্থল থেকে একটি দেশি বন্দুক ও তিন রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, গত ২৬ মার্চ উলুবনিয়া এলাকার এক বাড়িতে চার বছরের একটি শিশু ধর্ষণের শিকার হয়। ওই ঘটনায় গত ২৮ মার্চ শিশুটির বাবা প্রতিবেশী আব্দুর রহিমের বিরুদ্ধে চকরিয়া থানায় মামলা করেন।

রহিমের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে বলেও জানান এই র‌্যাব কর্মকর্তা।

থানা ও স্থানীয় এলাকা বাসী সুত্রে জানা যায়, গত ২৬ মার্চ ডুলাহাজারা উলুবনিয়া এলাকার আক্তার আহমদের পুত্র রহিম উদ্দিন (২০) শিশুকে নির্জন কক্ষে নিয়ে গিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। পরে শিশুটিকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য তাকে প্রথমে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক আহত শিশুর অবস্থা মারাত্মক দেখে তাকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এদিকে স্থানীয়রা জানিয়েছিলেন, রহিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে আরো কয়েকটি নারী সংক্রান্ত ঘটনায় সামাজিক ভাবে সামাধান করা হয়েছে। এ নির্মম ঘটনার সাথে জড়িতকে ব্যাক্তিকে আইনের আওতায় এনে কঠোর শাস্তির দাবীও জানায় তারা।