২০ এপ্রিল সুনামগঞ্জ ছাত্রলীগের সম্মেলন, জানেন না নেতারা

আগামী শুক্রবার (২০ এপ্রিল) সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। তবে সম্মেলনের ব্যাপারে জেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক কমিটির অনেক নেতাই জানেন না। তারা জানান, কে কি ভাবে সম্মেলন করছে আমরা জানি না। এই লোক দেখানো সিন্ডেকেট সম্মেলনে তারা যাবেন না বলেও জানিয়েছেন অনেকে।

প্রায় ৬ বছরের পুরাতন কমিটি ভেঙে গত বছরের ৩ ডিসেম্বর জেলা ছাত্রলীগের ১১ সদস্যবিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠন করে দেয় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। উক্ত কমিটিতে আরিফ উল আলমকে আহবায়ক ও যুগ্ম-আহবায়ক করা হয় নাজমুল হক কিরন, দিপঙ্কর কান্তি দে, এনায়েত রেজা জিসান, মাসকাওয়াত জামান ইন্তি, সোহেল রানা, আশিকুর রহমান রিপনকে সদস্য করা হয় ফয়সল আহমেদ, অভিজিৎ চৌধুরী, আশরাফুল ইসলাম, ইশতিয়াক আলম পিয়ালকে।

কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ ও সাধারণ সম্পাদক এস.এম জাকির হোসাইন কমিটির মেয়াদ তিন মাস বেধে দেন।

জেলা কমিটির দায়িত্বশীলদের তিন মাসের মধ্যে সব উপজেলা, পৌর, কলেজ ইউনিটের সম্মেলন অথবা জীবন বৃত্তান্ত সংগ্রহ করে কমিটি অনুমোদনের নির্দেশ দেয় কেন্দ্র।

কিন্তু কেন্দ্রের এমন নির্দেশনার চার মাসে পেরিয়ে গেলেও একটি ইউনিটেরও কমিটি দিতে পারেনি জেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক কমিটি। এমতাবস্থায় গত মাসে কয়েকটি ইউনিটের জন্য আগ্রহী নেতাদের জীবন বৃত্তান্ত সংগ্রহ করা হলেও কমিটি দিতে না পারায় ক্ষোভ প্রকাশ করছেন নেতাকর্মীরা।

সোমবার (১৬ এপ্রিল) রাতে কেন্দ্রে থেকে ২০ এপ্রিল সম্মেলনের তারিখ ঘোষণা করা হয়েছে। ছাত্রলীগের একটি সূত্রে থেকে জানা গেছে, জেলা কমিটিকে না জানিয়ে জেলা আওয়ামীলীগের কিছু প্রভাবশালী নেতা কেন্দ্রের সঙ্গে সমন্বয় রেখে ছাত্রলীগের সম্মেলন আয়োজন করেছেন। শহরের উকিলপাড়ার শহীদ আবুল হোসেন মিলনায়তনে সম্মেলনের স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। সম্মেলনের জন্য ইতি মধ্যে পোস্টারও তৈরি করা হয়েছে। তবে এই পোস্টার কে বানিয়েছেন তা জানেন না আহবায়ক কমিটির অনেক নেতৃবৃন্দ।

এমনকি এ সম্মেলনের ব্যাপারে তেমন কিছুই জানেন না জেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক কমিটির অধিকাংশ নেতারাও।

পোস্টারে দেখা গেছে, সম্মেলনে প্রধান অতিথি করা হয়েছে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট. মিসবাহ উদ্দিন সিরাজকে। সম্মেলনের উদ্বোধক কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগকে, প্রধান বক্তা হিসেবে রয়েছে কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন এর নাম।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জেলা আ.লীগের সভাপতি মতিউর রহমান, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নূরুল হুদা মুকুট, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক এম. এনামুল কবির ইমন।

সম্মেলনে সভাপতিত্ব করবেন জেলা ছাত্রলীগের আরিফ উল আলম পোস্টারে এই সব অতিথির নাম রয়েছে।
এ দিকে জেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক আরিফ উল আলমের সাথে মোবাইল ফোনে কয়েক বার যোগাযোগ করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেন নি।

যুগ্ম আহবায়ক মাসকাওয়াত জামান ইন্তি জানান, আমি সম্মেলনের ব্যাপারে কোন কিছু জানি না। সাংগঠনিক ভাবে আমাকে কোন চিটি দেয়া হয় নি।

সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক এই দুটি গুরুত্বপূর্ণ পদের জন্য অনেক নেতার নামই শোনা যাচ্ছে। সভাপতি পদে নাজমুল হক কিরণ, দিপঙ্কর কান্তি দে, দেওয়ান এনায়েত রেজা, আশিকুর রহমান রিপন, অভিজিৎ চৌধুরী, আশরাফুল ইসলাম এবং সাধারণ সম্পাদক পদে মাসকাওয়াত জামান ইন্তি, সোহেল রানা, ফয়সল আহমদ, ইশতিয়াক আলম পিয়ালের নাম আলোচনায় রয়েছে।

ছাত্রলীগ নেতারা জানান, ছাত্রলীগের জেলা কমিটিতে নিজের লোকদের শক্ত অবস্থানে দাড় করাতে তৎপরতা চালিয়ে যাচ্ছেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি, প্রথম সহভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সহ হেভিওয়েট নেতারা।

কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস.এম জাকির হোসাইন জানান, ২০ এপ্রিল সুনামগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। আমি নিজে উপস্থিত থাকবো। সম্মেলনের পর কমিটি হবে ঘোষণা করা হবে।