হাবিপ্রবি শহীদ মিনারে শিক্ষার্থীদের প্রতিবাদ

কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের উপর হামলাকারীদের শাস্তি ও শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার দাবিতে মোমবাতি প্রজ্বলন

কোটা সংস্কারের জন্য যারা দীর্ঘদিন ধরে নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন তাদের প্রতি হয়রানি মূলক মিথ্যা মামলা ও হামলার প্রতিবাদে এবং চিকিৎসার দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ মিনারে মোমবাতি জ্বালিয়ে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

বুধবার(৪জুলাই) সন্ধ্যায় মোমবাতি প্রজ্বলন কর্মসূচি পালনের সময় তারা এক মিনিট নীরবতাও পালন করেন।

মোমবাতি প্রজ্বলন কর্মসূচিতে অংশ নেয়া এক শিক্ষার্থী বলেন,আমরা একটি যৌক্তিক দাবি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছি এবং মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তা মেনে নিয়ে সংসদে কোটা পদ্ধতি বাতিলের ঘোষণা করেন। এরপর দীর্ঘদিন পার হয়ে গেলেও প্রজ্ঞাপন জারি না হওয়ায় সমস্যা দেখা দিয়েছে। আমরা আশা করি তিনি দ্রুত প্রজ্ঞাপন জারির মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের ক্লাস পরীক্ষায় ফিরে যাওয়ার সুযোগ করে দিবেন এবং আমাদের যে সকল ভাই বোনদেরকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসানো হয়েছে তাদেরকে নিঃশর্ত মুক্তি প্রদানের ব্যবস্থা করবেন।
কোটা সংস্কার আন্দোলন হাবিপ্রবি শাখার আহ্বায়ক বলেন, যৌক্তিক আন্দোলনে হামলা মেনে নেয়া যায়না। অন্যায়ভাবে যে সকল শিক্ষার্থীদের প্রতি নৃশংস ভাবে হামলা করা হয়েছে তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। সেই সাথে আটককৃত ভাইদের নিঃশর্ত মুক্তি ও আহতদের সুচিকিৎসা প্রদানের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে জোর দাবি জানাচ্ছি।

এদিকে এসব ঘটনাকে কেন্দ্র করে আজ ও ঢাবি,জাবি, ববি, রেরোবি, হাবিপ্রবি সহ বিভিন্ন জায়গায় আন্দোলন করেছে সাধারন শিক্ষক শিক্ষার্থীরা।