সুনামগঞ্জে কাস্টমসের অভিযান, অবৈধ সিগারেট আটক

সুনামগঞ্জ শহরে অভিযান চালিয়ে নকল ব্যান্ডরোল (রাজস্ব স্ট্যাম্প) ব্যবহৃত ‘সেনরগোল্ড’ নামের ১১ হাজার ৭১৮ টাকার মূল্যের ৫ হাজার ৮ শত ৫৯ শলাকা সিগারেট আটক করেছে জেলা কাস্টমস ও রাজস্ব বিভাগ।

মঙ্গলবার (১৭ জুলাই) সকালে শহরের জগন্নাথবাড়ি এলাকার দোকানগুলোতে অভিযান চালিয়ে এসকল অবৈধ সিগারেট আটক করা হয়।

সুনামগঞ্জ কাস্টমস ও রাজস্ব বিভাগের জেলা কর্মকর্তা মো. মাহতাব উদ্দিন সরদারের নেতৃত্বে অভিযানে উপস্থিত ছিলেন, জেলা কাস্টম ও ভ্যাট বিভাগের রাজস্ব কর্মকর্তা মুতাহার উদ্দিন সরকার, সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইসহাক, উজ্জ্বল কুমার
রায়, সিপাহী কর্ণ মনি নাথ ও সুব্রত দাশ।

এ ব্যাপারে জেলা সহকারি কাস্টমস ও রাজস্ব কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইসহাক বলেন, বিশেষ মতা আইন ১৯৭৪ এর ধারা ২৫ (ক) অনুযায়ী যদি কোন ব্যক্তি সরকার কর্তৃক রাজস্ব আদায়ের উদ্দেশ্যে প্রবর্তিত কোন ষ্টাম্প জাল করে বা জ্ঞাতসারে অনুরূপ কোন ট্যাক্স ষ্টাম্প জাল করার প্রক্রিয়ার সাথে জড়িত থাকে, তখন তিনি জালিয়াত হিসাবে বিবেচিত হবেন। এই আইন লঙ্ঘন করলে সেই ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড বা ১০ বছর পর্যন্ত যে কোন মেয়াদে কারাদণ্ডে দণ্ডিত করা হবে এবং অর্থদণ্ড ও করা হবে। কিন্তু এই আইনের কোন তোয়াক্কা না করে একটি বড় ধরনের সিন্ডিকেট নকল ট্যাক্স ষ্টাম্প জাল করে বাজারে কোটি কোটি টাকার সিগারেট বাজারজাত করছে। আইনের চোখে ফাঁকি দিয়ে দিনের পর দিন চালিয়ে যাচ্ছে।

এসময় জেলা কাস্টমস ও রাজস্ব বিভাগের জেলা কর্মকর্তা মো. মাহতাব উদ্দিন সরদার জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শহরের জগন্নাথ বাড়ি এলাকায় প্রচুর নকল সিগারেট বিক্রি হচ্ছে। তারই সুত্রধরে অভিযান চালিয়ে নকল ব্যান্ডরোল ব্যবহৃত ৫ হাজার ৮ শত ৫৯ শলাকা সিগারেট জব্দ করা হয়।

তিনি আরো বলেন, বাজেট ২০১৮ এর গেজেট অনুযায়ী বাংলাদেশের মার্কেটে সবচেয়ে কম দামের সিগারেট থাকবে ৪ টাকা শলাকা। যার প্যাকেট মূল্য হবে ৮০ টাকা। কিন্তু এক শ্রেণির অসাধু ব্যবসায়ীরা সুযোগ সন্ধানে ২ থেকে ১ টাকা শলাকা মূল্যে সিগারেট বাজারজাত করে আসছে। মানুষ এসব নকল সিগারেট খাচ্ছেন। যা স্বাস্থের জন্য ঝুকি ও মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে। এসব সিগারেট দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে এবং এসব সিগারেট থেকে মোটা অংকের রাজস্ব হারাচ্ছে বাংলাদেশ সরকার।