সিলেটে প্রভাতফেরিতে মানুষের ঢল

মহান একুশে ফেব্রুয়ারিতে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানোর জন্য বের করা প্রভাতফেরিতে সর্বস্তরের মানুষের ঢল নেমেছে। প্রভাতফেরির মাধ্যমে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে জড়ো হন নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ ও সংগঠন। এসময় শ্রদ্ধার ফুল হাতে নিয়ে শোকের আবেশে সাদা-কালো পোশাকে খালি পায়ে তারা এগিয়ে যান সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের দিকে।

বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) ভোর থেকেই ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে অনেকেই ব্যক্তিগত ও সাংগঠনিকভাবে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ করেছেন বেলা ১১টা পর্যন্ত।

এদিকে সকালে নানান বয়সী ও বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ ফুল, ব্যানার, জাতীয় পতাকা ও ফেস্টুন হাতে খালি পায়ে প্রভাতফেরিতে অংশ নেয়। এছাড়া ভোর থেকেই লোকারণ্য ছিল কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার প্রাঙ্গণসহ এর সামনের সড়কটি।

এদিকে সিলেট সম্মিলিত নাট্য পরিষদসহ অন্যান্য সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে দিনভর আয়োজন করেছে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের।

সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শহিদুল ইসলাম জানান, প্রতিবারের মতো এবারো রাত ১২টা ১ মিনিটে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুস্পস্তবক অর্পণের মাধ্যমে মহান এ দিবসটির আনুষ্ঠানিকতা শুরু করে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়। যা সর্বসাধারণের জন্য উম্মুক্ত ছিল। যার তত্বাবধানে ছিল সম্মিলিত নাট্য পরিষদ, সিলেট। এছাড়া সকাল ৮ টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হবে ‘একুশের মিছিল । মিছিলটি শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে গিয়ে শেষ হবে। ওইদিন সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় রিকাবীবাজারস্থ কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে থাকছে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। একুশের এসব কর্মসূচিতে উপস্থিত থাকার জন্য তিনি সবাইকে আহ্বান জানান।

 

এদিকে একুশে ফেব্রুয়ারি ভোর ৫.৪৫ টায় প্রভাতফেরীর মাধ্যমে তাদের কর্মসূচি শুরু করবে বলে জানিয়েছেন  সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের সাধারণ সম্পাদক রজতকান্তি গুপ্ত। প্রভাতফেরী নগরীর সারদা হলের সামনে থেকে শুরু হয়ে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে গিয়ে শেষ হবে বলে তিনি জানান।

দিনের অন্য কর্মসূচি সম্পর্কে সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেট’র অর্থ সম্পাদক ইন্দ্রানী সেন শম্পা বলেন, প্রভাতফেরীর পর সকাল ১০ টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গণে শুরু হবে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি। এরপর বেলা ৩ টায় শহীদ মিনারের মঞ্চে শুরু হবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। যেখানে থাকবে গান, নৃত্য, আবৃত্তি এবং পথনাটক। যা চলবে রাত ১০ টা পর্যন্ত। অমর একুশের সকল আয়োজনে উপস্থিত থাকার জন্য সবাইকে আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।