সিলেটে নিম্নবিত্তের ভরসা ফুটপাতের দোকান

জমতে শুরু করেছে ঈদের বেচাকেনা

সিলেটে জমতে শুরু করেছে ঈদের কেনাকাটা। বিত্তবানদের পাশাপাশি কেনাকাটায় ব্যস্ত হতে শুরু করেছেন মধ্যবিত্ত আর নিম্নবিত্তরাও। বিলাসবহুল বিপণী বিতান থেকে কেনাকাটা যাদের সাধ্যের বাইরে, এমন ক্রেতাদের ভরসা সিলেটের ফুটপাত।

রমজান মাস অর্ধেক না পেরোতেই ফুটপাতের উপর বসা কাপড়ের দোকানগুলোতে ক্রেতাদের উপচে পড়া ভীড় দেখা যাচ্ছে, বেড়েছে কেনাবেচা। ভ্রাম্যমাণ এই দোকানগুলোতে সাধারণত বিক্রি হয় দেশ-বিদেশ থেকে আসা পুরোনো কাপড়-জুতা। পাশাপাশি অনেক দোকানে থাকে নতুন পণ্যও।

সিলেটের বিভিন্ন স্থান ঘুরে দেখা গেছে, রাস্তার পাশে ভ্রাম্যমাণ দোকান বসিয়ে বিভিন্ন ধরণের কাপড় যেমন শার্ট, প্যান্ট, জুতাসহ আরও নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস বিক্রি করা হচ্ছে। সিলেটে নগরীর বন্দরবাজারে অবস্থিত কোর্ট পয়েন্ট, সুরমা মার্কেটের সম্মুখ থেকে পোস্ট অফিস পর্যন্ত এবং মধুবন মার্কেট প্রাঙ্গণ থেকে জিন্দাবাজার হয়ে চৌহাট্টা পর্যন্ত অস্থায়ীভাবে ফুটপাতে গড়ে উঠেছে দোকানগুলো। এসব দোকানে নিম্নবিত্ত, নিম্নমধ্যবিত্ত ও মধ্যবিত্ত পরিবারের ক্রেতারা প্রতিদিন ভীড় জমাচ্ছেন।

কথা হয় বন্দরবাজারের ফুটপাতে কাপড় কিনতে আসা ফয়েজুল রহমানের সাথে। তিনি বলেন, কাপড়ের দাম সীমিত হলেও মান খুব একটা মন্দ নয়। তাছাড়া বিলাসবহুল মার্কেটে কাপড়ের দাম খুবই চড়া। আমার তা কেনার সাধ্য নেই।

এদিকে, ফুটপাতের ব্যবসায়ীরা যে খুব নির্বিঘ্নে ব্যবসা করছেন তা নয়। তাদের অভিযোগ, দীর্ঘদিন ঠিকানাবিহীনভাবে ব্যবসা করে আসছি। নেই কোনো নিরাপত্তা। মাঝেমধ্যেই উচ্ছেদের ঝামেলায় পড়তে হয়। আমাদের অনেক চাপের মধ্য দিয়ে ব্যবসা চালাতে হচ্ছে।

ফুটপাতে গড়ে ওঠা কাপড়ের দোকানে বেচাকেনা নিয়ে বিপাকে পড়েছেন নগরীর বিলাসবহুল মার্কেটের ব্যবসায়ীরা। তাদের কয়েকজন জানালেন, ঈদের আর মাত্র দুই সপ্তাহ বাকি। ব্যবসা জমজমাট করার জন্য দেশি-বিদেশি কাপড় আর জুতা দোকানে সাজিয়ে বসলেও ফুটপাতে গড়ে ওঠা সস্তা কাপড়ের দোকানের কারণে তাদের বেচা-বিক্রিতে ভাটা পড়েছে। খুব রুচিসম্মত ক্রেতা ছাড়া নিম্নমধ্যবিত্ত শ্রেণির ক্রেতারা বিলাসবহুল মার্কেটে যাচ্ছেন না। খুব অল্প মূল্যের দামের কাপড় কিনতে তারা ছুটে যান ফুটপাতের দোকানগুলোতে।

তবে স্বল্প আয়ের মানুষের এসব নিয়ে মাথাব্যথা নেই। তারা চান সাধ আর সাধ্যের সমন্বয়। তাই ঈদে নিজের আর পরিবারের সদস্যদের নতুন জামা-জুতা কিনে দিতে তারা ছুটছেন ফুটপাতের দোকানে। স্বল্প খরচে মিটিয়ে নিচ্ছেন নিজেদের চাহিদা।