সিলেটে নাট্যকর্মীদের উপর হামলায় জেলা ও মহানগর আ.লীগের নিন্দা

0
0

সিলেট নগরীর ঐতিহ্যবাহী সারদা স্মৃতি ভবনে বিএনপির মিছিল থেকে ভবণের হল রুমে ঢুকে কর্তব্যরত নাট্যকর্মীদের ওপর হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন সিলেট জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শফিকুর রহমান চৌধুরী এবং সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এডভোকেট মো. নাসির উদ্দিন খান এই ঘটনাকে সংস্কৃতির ওপর আঘাত বলে মন্তব্য করেছেন।

সিলেটের সংস্কৃতি অঙ্গনে এমন ন্যাক্কারজনক হামলার ঘটনা কোনভাবেই মেনে নেয়া যায় না। যারা এই ন্যাক্কারজনক হামলা ঘটিয়েছে, তাদের খোঁজে বের করে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবী জানান জেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ।

এদিকে সিলেটের ঐতিহ্যবাহী সারদা স্মৃতি ভবনের হলরুমে প্রবেশ করে নাট্যকর্মীদের উপর দুর্বৃত্তদের হামলায় তীব্র নিন্দা ও তাদের গ্রেপ্তারের দাবি জানিয়েছেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ।

এক বিজ্ঞপ্তিতে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মাসুক উদ্দিন আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মো. জাকির হোসেন নাট্যকর্মীদের ওপর হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও তাদের গ্রেপ্তারের দাবি জানান।

আরও পড়ুন : সিলেটে সংস্কৃতিকর্মীদের উপর হামলাকারীদের গ্রেপ্তারে আল্টিমেটাম

নেতৃবৃন্দ বলেন, হামলাকারীদের দ্রুত চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে হবে। যারা সিলেটের সংস্কৃতি চর্চাকে বিনষ্ট করতে চায়। অস্থিতিশীল পরিবেশ সৃষ্টি করতে চায়। তাদেরকে কোনো ভাবেই ছাড় দেওয়া যাবে না। সামনে জাতীয় নির্বাচন। তাই দুর্বৃত্ত ও দুষ্কৃতকারীরা তৎপর হয়ে উঠছে। তাদের বিষয়ে আমাদেরকে সজাগ থাকতে হবে।

নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, ‘সংস্কৃতিকর্মীরা হামলাকারীদের ধরতে ২৪ ঘন্টার যে আল্টিমেটাম দিয়েছেন তাদের সাথে আমরা সহমত পোষণ করছি। এই হামলায় সংস্কৃতিকর্মীদের অনেকেই আহত হয়েছেন। তাদের প্রতি আমরা সমবেদনা জানাচ্ছি। অচিরেই হামলাকারীদের গ্রেপ্তার করে তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক।’

উল্লেখ্য, ঐতিহ্যবাহী সারদা স্মৃতি ভবনের সংস্কার কাজ শেষে আজ থেকে নতুনভাবে চালু করা উপলক্ষে তিন দিনব্যাপী (২১-২৩ সেপ্টেম্বর) সম্মিলিত নাট্য পরিষদ নাট্য প্রদর্শনীর আয়োজন করে। বৃহস্পতিবার উদ্বোধনী দিনে সন্ধ্যার পূর্বে বিএনপির রোড মার্চ এবং সমাবেশে অংশ নিতে আসা মিছিল থেকে বিএনপি নেতাকর্মীরা নাট্যকর্মীদের ওপর হামলা চালায়। এতে কয়েকজন নাট্যকর্মী আহত হন। ঘটনার প্রতিবাদে তাৎক্ষণিক নগরীতে সম্মিলিত নাট্য পরিষদসহ সংস্কৃতি কর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল করে।