জনপ্রতিনিধিদের সাথে সিলেট জেলা পুলিশের মতবিনিময়

সিলেট জেলার সকল পৌরসভার মেয়র ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দের সাথে আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মতবিনিময় সভা করেছে সিলেট জেলা পুলিশ।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১ টায় পুলিশ লাইন্স, সিলেটের শহীদ মুক্তিযোদ্ধা এসপি এম. শামসুল হক মিলনায়তনে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। মতবিনিময় সভায় তিনজন পৌর মেয়র এবং আটাত্তর জন ইউপি চেয়ারম্যান উপস্থিত ছিলেন।

সিলেট জেলা পুলিশ সুপার মো. মনিরুজ্জামানের সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় পুলিশ কর্মকর্তাদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) ড. আ.ক.ম. আকতারুজ্জামান বসুনিয়া, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (উত্তর) আবুল হাসনাত খান, জেলা বিশেষ শাখার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. মাহবুবুল আলমসহ বিভিন্ন সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, সহকারী পুলিশ সুপার ও সকল থানার অফিসার ইনচার্জগণ।

সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (সদর) মো. লুৎফর রহমানের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (দক্ষিণ) ড.আ.ক.ম. আকতারুজ্জামান বসুনিয়া। সভায় আগত বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তা, পৌর মেয়র ও ইউপি চেয়ারম্যানগণ তাদের সমস্যা ও মতামত সভাপতির নিকট পেশ করেন।

সভাপতির বক্তব্যে মো. মনিরুজ্জামান আসন্ন পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষ্যে মাঠ পর্যায়ে কর্মরত কর্মকর্তা ও জনপ্রতিনিধিদের সমন্বয়ে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

এসময় তিনি ভারতীয় তীর নামক জুয়া খেলা ও ইয়াবার বিরুদ্ধে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের নির্দেশ প্রদানের পাশাপাশি পুলিশের আধুনিকায়ন ও কার্যক্রম আরও গতিশীল করার লক্ষ্যে আধুনিক পুলিশিং এর সকল কলা-কৌশল রপ্ত করার জন্য মাঠ পর্যায়ের সকল সদস্যকে নিয়মিত ব্রিফিং করার জন্যও অফিসার ইনচার্জদের পরামর্শ প্রদান করেন।

দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্যে তিনি বলেন- জেলার যে কোন স্থানে জুয়া, মাদক, জঙ্গি ও অন্যান্য অপরাধ প্রতিরোধ ও দমনে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের আইনগত ক্ষমতা রয়েছে। অফিসার ইনচার্জ এবং নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিদের মধ্যে সুসম্পর্ক বজায় রেখে সকল অপরাধ সংশ্লিষ্ট তথ্য আদান প্রদানের জন্য চেয়ারম্যান এবং মেয়রদেরকে অনুরোধ করেন।

তিনি সকল থানা এবং পুলিশ স্থাপনাকে দালালমুক্ত ঘোষণা করে এহেন যে কোন অপতৎপরতার তথ্য সরাসরি পুলিশ সুপারকে প্রদানের জন্য বলেন। এছাড়া আসন্ন মাহে রমজান ও পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে জেলার গুরুত্বপূর্ণ স্থানসমূহ বিশেষ করে বড় বড় বাজারে যানজট নিরসন ও নীরব চাঁদাবাজি বন্ধে জেলা পুলিশের তৎপরতার পাশাপাশি নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিবৃন্দের সহযোগিতা কামনা করেন।