সিরিয়ায় ২ সপ্তাহে সরকারি বাহিনীর হামলায় নিহত ৬৭৪

সিরিয়ার সরকারি বাহিনীর হামলায় শেষ দুই সপ্তাহে অন্তত ৬৭৪ জন নিহত হয়েছে। রুশ বাহিনীর সহায়তায় বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত গৌত এলাকায় শুক্রবারও এই হামলা অব্যাহত রয়েছে বলে জানা গেছে। দেশটির একটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা এ তথ্য জানিয়েছে।

২০১৩ সালের মাঝামাঝিতে বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রণে চলে যাওয়ার পর পূর্ব গৌতায় অন্তত চার লাখ মানুষ আটকা পড়ে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের উদ্বেগ থাকলেও গত শনিবার হামলা বন্ধের বিষয়ে নিরাপত্তা পরিষদ সর্বসম্মত প্রস্তাব পাশে ব্যর্থ হয়েছে।

সেখানে বিতর্কিত একতরফা যুদ্ধবিরতির কারণে মানবিক ত্রাণ সরবরাহের গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ ব্যর্থ হয়েছে। হামলার কারণে ত্রাণ ভর্তি ৪০টিরও বেশি ট্রাক অবরুদ্ধ এ অঞ্চলে বসবাস করা চার লাখ লোকের কাছে পৌঁছাতে পারেনি। ফলে অস্ত্রবিরতি দ্রুত বাস্তবায়নের জন্য জাতিসংঘ নতুন করে আহবান জানিয়েছে। এদিকে সোমবার মস্কো দিনে পাঁচ ঘণ্টা অস্ত্রবিরতি পালনের ঘোষণা দেয়ায় বোমাবর্ষণ অনেকটা কমে এসেছে। এর আগে মাত্র কয়েকদিনের বোমাবর্ষণে কয়েকশ’ লোক নিহত হয়। এতে বিশ্বব্যাপী সমালোচনার ঝড় উঠে।

বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত এ অঞ্চল বেসামরিক লোকজনকে চলে যাওয়ার সুযোগ দিতে রাশিয়ার প্রস্তাবিত একটি করিডোর ব্যবস্থা তৃতীয় দিনের মতো উম্মুক্ত রাখলেও আপাতদৃষ্টিতে তেমন লোককে চলে যেতে দেখা যাচ্ছে না। সিরিয়া বিষয়ক জাতিসংঘের মানবিক টাস্কফোর্সের প্রদান জ্যান ইগেল্যান্ড জানান, আগামী কয়েকদিনের মধ্যে ইস্টার্ন গৌতায় ত্রাণ ভর্তি গাড়ি বহর প্রবেশ করতে পারে বলে তিনি আশা করছেন।