সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে নৌকার বিজয় ঠেকানো যাবে না : কামরান

সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র প্রার্থী বদর উদ্দিন আহমদ কামরান বলেছেন, সিলেটে নৌকার পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হয়েছে। সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে নৌকার বিজয় কেউ ঠেকানো যাবে না। সন্ত্রাসের পৃষ্ঠপোষকতাকারী ও আশ্রয়দাতাদেরকে আগামী নির্বাচনে পূণ্যভূমি সিলেটের মানুষ ভোটের মাধ্যমে প্রত্যাখ্যান করবেন।

সোমবার (২৪ জুলাই) রাতে সিলেট নগরীর ঘাসিটুলাসহ বিভিন্ন স্থানে নৌকা প্রতীকের সমর্থনে অনুষ্ঠিত জনসভায় তিনি এ কথা বলেন।

সভায় কামরান বলেন, অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচনী পরিবেশ বানচাল করার জন্য কোনো কোনো প্রার্থীর পক্ষে সিলেট নগরীতে বাহির থেকে অস্ত্রবাজ সন্ত্রাসী এনে জড়ো করা হচ্ছে। পুলিশ এদেরকে আটক করলে বিএনপি প্রার্থী চিহ্নিত এসব অপরাধীর পক্ষে প্রশাসনকে প্রকাশ্যে হুমকি দিচ্ছেন। ওই প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা গভীর রাতে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে নৌকার নির্বাচনী কার্যালয়। নগরীর বিভিন্ন স্থানে গভীর রাতে নৌকার পোস্টার খুলে সেখানে ধানের শীষের পোস্টার সাঁটাচ্ছে -যা সন্ত্রাস ও সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডকে উৎসাহিত করছে।

তিনি, এসব অন্যায় অবিচারের বিরুদ্ধে শান্তি, উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রার পক্ষে আগামী ৩০ জুলাই সিলেট সিটি নির্বাচনে নৌকার বিজয় ত্বরান্বিত করার জন্য কামরান সকলের প্রতি অনুরোধ জানান।

নগরীর ঘাসিটুলায় রাতে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় সভাপতিত্ব করেন ১০নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি জালাল উদ্দিন সাবুল।

মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর আলম ও জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া মাসুকের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মিসবাহ উদ্দিন সিরাজ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সাবেক সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ, যুগ্ম সম্পাদক বিজিত চৌধুরী, জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান, জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা অ্যাডভোকেট সৈয়দ শামীম আহমদ, অ্যাডভোকেট রনজিত সরকার, জগলু চৌধুরী, আব্দুল মুকিত, আব্দুল আলী বাবু মিয়া, ইঞ্জিনিয়ার সিরাজুল ইসলাম।

এছাড়া আরো বক্তব্য রাখেন- বিয়ানীবাজার পৌরসভার মেয়র আব্দুস শুকুর, সিলেট জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান আমাতুজ জাহুরা রুবা গাজী, সিলেট মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী ডা. নাজরা চৌধুরী, হেলেন আহমদ, হাসিনা আক্তার, অ্যাডভোকেট আব্বাস উদ্দিন, মহানগর যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক সেলিম আহমদ সেলিম, যুবলীগ নেতা তজম্মুল ইসলাম তাজুল, সিলেট মহানগর ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ ইমরুল হাসান, সাবেক ছাত্রনেতা এমদাদ রহমান, আব্দুর রশিদ, যুবলীগ নেতা তারেক আহমদ তাজ, শেখ আক্তার, শেখ সুরুজ আলম, শাহেদ আহমদ, মান্না আহমদ, আব্দুল করিম, নেহজাব আহমদ শফি ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা সোহেল রানা।