সনাতন ধর্মাবলম্বী সেই শিক্ষকের হজের ছুটি বাতিল

ভুলক্রমে জারি করা সেই আদেশ

গোপালগঞ্জের সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের সনাতন ধর্মাবলম্বী অধ্যাপক অরুন চন্দ্র বিশ্বাসকে সৌদি আরবে হজে যাওয়ার জন্য ৫০ দিনের ছুটি দেওয়ার আদেশটি অবশেষে বাতিল করা হয়েছে। একই স্মারকে এবং একই তারিখের সংশোধিত নতুন আদেশও জারি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগ।

মন্ত্রণালয়ের উপসচিব মুর্শিদা শারমিন স্বাক্ষরিত গত ৩০ এপ্রিলের তারিখের আদেশ বৃহস্পতিবার (৩ মে) জারি করা হয়।

ভুলক্রমে জারি করা আদেশে গোপালগঞ্জের সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের সনাতন ধর্মাবলম্বী অধ্যাপক অরুন চন্দ্র বিশ্বাসকে ৫০ দিনের ছুটি দেওয়া হয়েছিল। একই আদেশে নারায়ণগঞ্জের সরকারি তোলারাম কালেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক নাছিমা বেগমকেও ওমরাহ পালনের জন্য ১ জুন থেকে ২১ জুন অথবা হস্তান্তরের তারিখ থেকে ২১ দিন ছুটি মঞ্জুর করা হয়।

বৃহস্পতিবার নতুন করে জারি করা আদেশে অধ্যাপক নাছিমা বেগম এবং নতুন করে যিনি হজে যাওয়ার জন্য আবেদন করেছিলেন তাকেও ছুটি দেওয়া হয়েছে। নোয়াখালীর চৌমুহনী সরকারি এস এ কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মোকাদ্দেসুর রহমানকে ২৫ জুলাই থেকে ১২ নভেম্বর পর্যন্ত অথবা দায়িত্ব হস্তান্তরের তারিখ হতে ৫০ দিন ছুটি দেওয়া হয়।

আর সংশোধিত আদেশে গোপালগঞ্জের সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের সনাতন ধর্মাবলম্বী অধ্যাপক অরুন চন্দ্র বিশ্বাসের নাম বাদ দেওয়া হয়।

এ বিষয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (সরকারি কলেজ) ড. মোল্লা জালাল জানান, হজে যাওয়ার জন্য যিনি আবেদন জানিয়েছিলেন, তার আবেদন অনুযায়ী ছুটি দিয়ে আদেশ জারি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গোপালগঞ্জের সরকারি বঙ্গবন্ধু কলেজের হিসাব বিজ্ঞান বিভাগের সনাতন ধর্মাবলম্বী অধ্যাপক অরুন চন্দ্র বিশ্বাসকে সৌদি আরবে হজে যাওয়ার জন্য ৫০ দিনের ছুটি দেওয়া হয়েছিল। গত ৩০ এপ্রিল স্বাক্ষরিত আদেশটি সংশোধন করে আবার ওয়েব সাইটে দেওয়া হয় বৃহস্পতিবার। এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে হয় ব্যাপক আলোচনা-সমালোচনা।