শুভ জন্মদিন লিওনেল আন্দ্রেস মেসি

আর্জেন্টিনা জাতীয় ফুটবল দলের স্ট্রাইকার লিওনেল মেসির ৩১তম জন্মদিন আজ (রোববার)। আর্জেন্টিনার রোজারিও শহরে ১৯৮৭ সালের এই দিনটিতে জন্মগ্রহণ করেন বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা এই ফুটবল তারকা। তাঁর পুরো নাম লিওনেল আন্দ্রেস মেসি কুচেত্তিনি।

ফুটবলের সঙ্গে ছোটবেলা থেকেই সখ্য গড়ে ওঠা মেসি মাত্র চার বছর বয়সেই স্থানীয় এক ক্লাবে যোগ দেন। মাত্র ছয় বছর বয়সে গায়ে চাপান নিজের প্রিয় ক্লাব নিউ ওয়েলস ওল্ড বয়েজের জার্সি। ফুটবলের দুরন্ত পথচলা মূলত তখন থেকেই শুরু।

তবে এই পথচলাটা মসৃণ ছিল না তাঁর জন্য। ১৪ বছর বয়সে হরমোন চিকিৎসা নিতে হয় এই তারকার। চিকিৎসা শেষে তিনি বার্সেলোনার সঙ্গে জড়িয়ে পড়েন। সেই থেকে ক্লাবটির সঙ্গেই জুড়ে আছেন।

মেসি ক্যারিয়ারে চারটি ইউরোপিয়ান কাপ, আটটি লিগ টাইটেল, তিনটি ক্লাব ওয়ার্ল্ড কাপ, পাঁচটি ব্যালন ডি’অর জিতেছেন।

কিছু খেলোয়াড় থাকে, যাঁদের পরিসংখ্যান দিয়ে বুঝতে যাওয়াটা বোকামি। মেসি তেমনই একজন। দেশের হয়ে তাঁর নেই বড় কোনো অর্জন। তাই বলে কি তিনি মাঠে ব্যর্থ? কিংবা বার্সেলোনার এই তারকার পাঁচটি ব্যালন ডি’অর দিয়ে কি বোঝা যাবে মাঠে তিনি কতটা মনোমুগ্ধকর? মেসিকে বুঝতে হলে দেখতে হবে তাঁর চোখ ধাঁধানো খেলা। পুরো মাঠকে ক্যানভাস বানিয়ে তাঁর পায়ের আঁকিবুঁকি দেখতে হবে স্বচক্ষে। তবেই না বোঝা যাবে মেসিকে।

বার্সেলোনা ক্লাবের হয়তো মেসির কাছে আর কিছু চাওয়ার নেই। স্প্যানিশ ক্লাবটিকে যে মেসি পরিপূর্ণ করে দিয়েছেন। কিন্তু দেশের মানুষের মেসির কাছে একটি শিরোপা দাবি। মেসির নিজেরও স্বপ্ন আকাশি-সাদা জার্সি গায়ে চাপিয়ে শিরোপা উঁচিয়ে ধরার। বিশ্বের অন্যতম সেরা এই তারকার অধরা স্বাদ পূর্ণ হোক, জন্মদিনে এটাই কামনা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে ইতোমধ্যেই ভক্তরা ‘শুভ জন্মদিন’ বলে শুভেচ্ছা জানাচ্ছে পাঁচবারের ব্যালন ডি’অর জয়ী এ ফুটবল কিংবদন্তিকে। কিন্তু সত্যিই কি আজ শুভ দিন কাটাচ্ছেন আর্জেন্টাইন অধিনায়ক?

নিজের জন্মদিন হলেও দিনটা ভালো কাটছে না লিওনেল মেসির। কেননা রাশিয়া বিশ্বকাপে দুটো ম্যাচ শেষ হলেও দ্বিতীয় রাউন্ড এখনো নিশ্চিত হয়নি দুবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। তবে তাদের সম্ভবনা এখনো রয়েছে। তাই মেসি ভক্তরা তাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে নিজের শ্রেষ্ঠত্ব প্রতিষ্ঠা করার অনুপ্রেরণাও জোগাচ্ছেন।