রাহুল ঝড়ে উড়ে গেলো দিল্লি

২.৫ ওভারে পঞ্চাশ, পাঞ্জাবের স্কোরকার্ড। লোকেশ রাহুলের টর্নেডো ইনিংসে দিল্লির বোলারদের প্রাণ ওষ্ঠাগত প্রায়। আইপিএল’র দ্রুততম ফিফটি করেছেন মাত্র ১৪ বলে। ১৬ বলের ইনিংসে ৬ টি করে চার ও ছয় মেরেছেন রাহুল।

রাহুলের আগে আইপিএলে দ্রুততম ফিফটির রেকর্ড ছিল ইউসুফ পাঠান ও সুনীল নারাইনের। দুজনেই ১৫ বলে ফিফটি করেছিলেন। তৃতীয় ওভারের পঞ্চম বলেই ফিফটিও ছুঁয়েছেন রাহুল। ফিফটি করার পর অবশ্য বেশিক্ষণ ক্রিজে থাকেন নি রাহুল। ১৬ তম বলেই ট্রেন্ট বোল্টের বলে শামিকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। পাঞ্জাবের সামনে লক্ষ্য ছিলো ১৬৭ রান। এমন ঝড়ো শুরুর পর পাঞ্জাবের বাকি ব্যাটসম্যানদের দায়িত্ব ছিলো শুধু দেখে শুনে খেলাটা। হয়েছেও তাই। ফলাফল ৬ উইকেট আর ৭ বল হাতে রেখেই জয়।

করুন নায়ারের ৩৩ বলে ৫০, ডেভিড মিলারের অপরাজিত ২৪ ও মার্কাস স্টয়নিসের অপরাজিত ২২ রানে দিল্লির ১৬৬ রান তাড়ায় সফলতা আসে সহজেই। এর আগে টসে জিতে দিল্লীকে ব্যাটিং এ পাঠান পাঞ্জাব অধিনায়ক অশ্বিন। দিল্লী দলপতি গৌতম গম্ভীরের অর্ধশতকে ৭ উইকেট হারিয়ে ১৬৬ রান করে দিল্লী। রিশাব প্যান্ট ২৮ ও ক্রিস মরিস ২৭ রান করেন। পাঞ্জাবের হয়ে ২ টি করে উইকেট নেন মুজিব উর রহমান ও মোহিত শর্মা। অশ্বিন ও প্যাটেল নেন ১ টি করে উইকেট।

এরপরই সেই রাহুল ঝড়। ঝড়ের শুরুটা বোল্টের করা প্রথম ওভারের চতুর্থ বল থেকেই। ইনিংসের চতুর্থ বলে বোল্টকে সরাসরি সীমানা ছাড়া করেন রাহুল। তারপরের দুই বলেও চার। ঝড়ের ঝাপটা সবচে বেশি টের পেয়েছেন অমিত মিশ্র। তার করা ইনিংসের তৃতীয় ওভারে রাহুল নেন ২৪ রান; এবং ফিফটিতেও পৌছান।