যৌন হয়রানি নির্মূলে পারিবারিক ভাবে এগিয়ে আসতে হবে

 

যৌন হয়রানি নির্মূলকরণ নেটওয়ার্ক সিলেটের ত্রৈ-মাসিক সভায় বক্তারা যৌন হয়রানি বন্ধে সকলকে এগিয়ে আসার আহবান জানান। পারিবারিকভাবে আমরা সচেতন হতে পারলে যৌন হয়রানি একেবারে কমে আসবে। তাই পারিবারিকভাবে স্মার্টফোন ব্যবহারে ১৮ বছরের নিচের শিশু-কিশোরদের ক্ষেত্রে কঠোরতা অবলম্বের উপর গুরুত্ব দিতে হবে।

ব্র্যাকের অনুপ্রেরণায় গঠিত যৌন হয়রানি নির্মূলকরণ নেটওয়ার্ক সিলেটের উদ্যোগে বুধবার (২৭জুন) সিলেট সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে অনুষ্ঠিত ত্রৈ-মাসিক সভায় বক্তারা উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

যৌন হয়রানি নির্মূলকরণ নেটওয়ার্ক সিলেটের আহবায়ক ফারুক মাহমুদ চৌধুরীর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অংশ নেন সিলেট সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের প্রধান শিক্ষক বাবলী পুরকায়স্থ, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সহযোগী অধ্যাপক তাহমিনা ইসলাম, সিলেট সরকারি অগ্রগামী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের সহকারি শিক্ষক মমতাজ বেগম ও নুসরাত হক, রাজা জিসি হাই স্কুলের সিনিয়র শিক্ষক মোহাম্মদ মানিক খান, রসময় উচ্চ বিদ্যালয়ের সিনিয়র শিক্ষক এ. কে. এম. আব্দুজ জহির, ব্র্যাকের জেলা প্রতিনিধি বিভাষ চন্দ্র তরফদার, সাংবাদিক মোঃ মুহিবুর রহমান, যৌন হয়রানি নির্মূলকরণ নেটকওয়ার্কের কার্যনির্বাহী সদস্য মো. শাহ আলম, ডা. এএএম শিহাব উদ্দিন, আলী আহসান হাবিব।

সভায় বক্তারা পরবর্তী সময়ে আগস্টের মধ্যে সিলেটে অবস্থিত স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের নিয়ে সমাবেশ করার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।