মেয়েসহ পাকিস্তানের পথে নওয়াজ, পৌঁছালেই গ্রেপ্তার

ফাইল ছবি

পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ ও তার মেয়ে মরিয়ম নওয়াজ দেশে ফিরছেন। শুক্রবার ভোরে ইতিহাদ এয়ারওয়েজের একটি উড়োজাহাজে তারা পাকিস্তানের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন। এদিন স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা ১৫ মিনিটে লাহোরের আল্লামা ইকবাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা রয়েছে তাদের।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডন জানিয়েছে, লাহোর বিমানবন্দরে পৌঁছানোর পরপরই বাবা ও মেয়েকে গ্রেপ্তার করা হবে। এরপর হেলিকপ্টারে করে তাদের নেয়া হবে আদিয়ালা কারাগারে।

২০১৭ সালে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অযোগ্য ঘোষণার পর পদত্যাগ করেন নওয়াজ। তার দল মুসলিম লীগ এখনও পাকিস্তানের ক্ষমতায় রয়েছে। দুর্নীতি মামলায় গত ৬ জুলাই নওয়াজ শরিফকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেয় দেশটির অ্যাকাউন্টেবিলিটি কোর্ট। নওয়াজের সঙ্গে তার মেয়ে মরিয়মকেও সাত বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। সেইসঙ্গে মরিয়মের স্বামী ক্যাপ্টেন অবসরপ্রাপ্ত সফদারকে এক বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এছাড়া নওয়াজকে ৮০ লাখ এবং মরিয়মকে ২০ লাখ ব্রিটিশ পাউন্ড জরিমানা করা হয়েছে। আত্মসমর্পণের জন্য তাদেরকে ১০ দিনের সময় বেঁধে দেওয়া হয়।

নওয়াজ শরিফের সাথে তাঁর মেয়ে মরিয়ম নওয়াজ (ফাইল ছবি)

এর আগে স্ত্রী বেগম কুলসুম নওয়াজের চিকিৎসার জন্য গত ১৪ জুন সপরিবারে লন্ডন যান নওয়াজ শরিফ। অ্যাভেনফিল্ড এলাকার নিজ বাসায় বসে মেয়ে মরিয়ম আর সাবেক অর্থমন্ত্রী ইসহাক ধরের সঙ্গে বসে মামলার রায় ঘোষণা শোনেন তিনি। এরপর নওয়াজ কন্যা মরিয়ম জানান, ১৩ জুলাই তারা দেশে ফিরবেন।

ডনের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, ঘোষণা মোতাবেক বৃহস্পতিবার লন্ডন থেকে একটি বিমানে করে রওনা দেন তারা। যাত্রাবিরতির জন্য আবুধাবিতে থামেন নওয়াজ ও মরিয়ম। সেখান থেকে ইতিহাদ এয়ারওয়েজের ইওয়াই২৪৩ ফ্লাইটে করে লাহোরের আল্লামা ইকবাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছানোর কথা তাদের। ধারণা করা হচ্ছে, শুক্রবার সন্ধ্যা সোয়া ছয়টার মধ্যে তাদেরকে বহনকারী বিমানটি লাহোরের বিমানবন্দরে অবতরণ করবেন। সেখানে পৌঁছানোমাত্রই তাদেরকে গ্রেফতার করা হবে। এরপর সেখান থেকে হেলিকপ্টারে করে তাদেরকে ইসলামাবাদ নিয়ে যাওয়া হবে এবং সেখানকার আদিয়ালা জেলে কারাভোগ করতে হবে তাদেরকে।

লন্ডন থেকে রওনা দেওয়ার আগে মরিয়ম নওয়াজ টুইটারে কয়েকটি ছবি পোস্ট করেছেন। একটি ছবিতে দেখা গেছে বাবা নওয়াজ শরিফ ও মেয়ে মরিয়ম লন্ডন হাসপাতালে কোমায় থাকা কুলসুম নওয়াজের কাছ থেকে অশ্রুসিক্ত বিদায় নিচ্ছেন। ৬ জুলাই রায় ঘোষণার আগে মেয়ে মরিয়ম এক টুইটার বার্তায় নওয়াজকে পিএমএল-এন এর সিংহ অভিহিত করে বলেন, রায় যাই হোক না কেন কোনও কিছুতেই ছাড় দেওয়া হবে না। পরে আরেক টুইটে তিনি লেখেন, ‘এসব কোনও কিছুই নওয়াজ শরিফের জন্য নতুন নয়, অতীতে নির্বাসন, অযোগ্যতা এমনকি যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ সামলেছেন তিনি।’

পানামা পেপারস কেলেঙ্কারি মামলায় অভিযুক্ত হয়ে সুপ্রিম কোর্টের রায়ে প্রধানমন্ত্রী পদে অযোগ্য ঘোষিত হওয়ার পর পদত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। এরপর তার আসনটি শূন্য হয়। ১৭ সেপ্টেম্বর শূন্য আসনে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে পিএমএলএন-এর হয়ে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জয় পান নওয়াজের স্ত্রী কুলসুম। তবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার আগেই তার গলায় ক্যান্সার ধরা পড়ে। পিএমএল-এন তখন জানিয়েছিল,কুলসুমের ক্যান্সার আরোগ্যযোগ্য। তবে এখন কোমায় আছেন নওয়াজ পত্নী।