ভূমধ্যসাগর থেকে বাংলাদেশিসহ ৫৮১ অভিবাসী উদ্ধার

আফ্রিকার উপকূল থেকে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেওয়ার সময় ৪৭৬ জন অভিবাসন প্রত্যাশীকে উদ্ধার করেছে স্পেনের নৌ উদ্ধার সার্ভিস।

লস অ্যাঞ্জেলস টাইমস জানিয়েছে, শুক্রবার ও শনিবার ১৫টি ছোট নৌকায় করে তাদের উদ্ধার করা হয়। তবে এ ঘটনায় কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

এদিকে, রোববার ভিন্ন আরেক অভিযানে লিবিয়ার কাছে জলসীমায় ১০৫ জনের বেশি অভিবাসীকে উদ্ধার করেছে স্পেনভিত্তিক একটি অলাভজনক সংস্থা ‘প্রোঅ্যাক্টিভা ওপেন আর্মস’। সংস্থাটি জানায়, মোটরবিহীন ওই নৌকায় বাংলাদেশ, মিশর, লিবিয়া, নাইজেরিয়া ও অন্য দেশের নাগরিক ছিল।

অভিবাস্ন প্রত্যাশীদের বরাত দিয়ে বার্তা সংস্থা এপি জানায়, মানব পাচারকারী ও তারা পৃথক নৌকায় যাচ্ছিলেন। তবে ভূমধ্যসাগরের মাঝখানে তাদের নৌযানের ইঞ্জিন খুলে নেয় পাচারকারীরা এবং চলে যায়।

অনুকূল আবহাওয়ার কারণে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেবার হার বেড়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। স্পেন ও অন্যান্য দক্ষিণাঞ্চলীয় ইউরোপীয় দেশে পড়ি জমাতে মানব পাচারকারীদের সহায়তায় প্রতি বছর ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেয়ার চেষ্টা করে হাজার হাজার অভিবাসন প্রত্যাশী। অধিকাংশ জলযানই উন্মুক্ত পানিতে চলাচলের অনুপযুক্ত এবং প্রতিবছর হাজার হাজার অভিবাসন প্রত্যাশী ডুবে মারা যায়।

জাতিসংঘ জানিয়েছে, চলতি বছর এখন পর্যন্ত ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিতে গিয়ে ৬১৫ জন অভিবাসন প্রত্যাশীর মৃত্যু হয়েছে। এ সময়ের মধ্যে ২২ হাজার ৪৩৯ জন ইউরোপের উপকূলে পৌঁছাতে সক্ষম হয়। যাদের মধ্যে চার হাজার চারশ’ নয়জনই আবার স্পেনে পাড়ি জমায়।