ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে সিসিকের পরিকল্পনা সভা

বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন জনস্বাস্থ্য পুষ্টি প্রতিষ্ঠান ও জাতীয় পুষ্টি সেবা, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর কর্তৃক পরিচালিত ১২ ডিসেম্বর জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের উদ্যােগে অ্যাডভোকেসী ও পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বুধবার (৬ ডিসেম্বর) সকালে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের হলরুমে সিসিকের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. জাহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর শান্তনুদত্ত সন্তু, এবিএম জিল্লুর রহমান, তোফায়োল আহমদ শেপুল, এড. আব্দুর রকিব বাবলু, এসএম শওকত আমিন তৌহিদ, জয়নাল আবেদীন, আলতাফ হোসেন সুমন, লিটন আহমদ, ফখরুল ইসলাম,মতিউর রহমান, সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলরদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নারগিস সুলতানা, শারমিন আক্তার সুমি, ছমিরুনন্নেছা, আয়েশা খাতুন কলি।

সভায় সমাপনী বক্তব্য রাখেন, প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান। উপস্থিত ছিলেন প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা মতিউর রহমানসহ সিসিকের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ।

ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত উপস্থাপন সহ বিস্তারিত অবহিত করেন প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. জাহিদুল ইসলাম। সভায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য পরিদর্শক, বেসরকারী এনজিও সংস্থা ও বিভিন্ন দপ্তের প্রতিনিধিবৃন্দ।

সভায় বক্তারা বলেন, জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন শতভাগ সফলভাবে বাস্তবায়নের মাধ্যমে অপুষ্টি দূরীকরণ সম্ভব হবে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের গাইড লাইন অনুযায়ী শিশুদের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়াতে হবে, কোন শিশু ভিটামিন ‘এ’ খাওয়ানো থেকে বাদ না যায় সেদিকটি অবশ্যই নজরে রাখতে হবে।

প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান বলেন,সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকায় ইতিপূর্বে অনুষ্ঠিতব্য সকল জাতীয় কর্মসূচীসমূহ শতভাগ সফলভাবে বাস্তবায়ন করা হয়েছে। আসন্ন জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন কার্যক্রম বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী সকল কার্যক্রম গ্রহন করা হয়েছে, পূর্বের সফলতা এবারও অক্ষুন্ন রাখা হবে।

উল্লেখ্য, আগামী ১২ই ডিসেম্বর ২০২৩ইং সারাদেশের ন্যায় সিলেট সিটি কর্পোরেশন এলাকায় জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন পালিত হবে। উক্ত ক্যাম্পেইন চলাকালীন সময়ে ৬-১১ মাস বয়সী শিশুকে ১টি নীল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল ও ১২-৫৯ মাস বয়সী শিশুকে ১টি লাল রঙের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এছাড়া শিশুর বয়স ৬ মাস পূর্ণ হলে মায়ের দুধের পাশাপাশি পরিমাণ মত ঘরে তৈরি সুষম খাবার খাওয়ানোর পরামর্শ প্রদান করা হবে।