বেপরোয়া বাসের চাপায় এবার পা হারালেন রাসেল

রাজধানীতে এবার বেপরোয়া বাসের চাপায় পা হারালেন এক তরুণ। বাসের চাকায় পিষ্ট হয়য়ে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে তার বাঁ পা।

শনিবার (২৮ এপ্রিল) বিকেলে যাত্রাবাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। ওই বাস ও এর চালককে আটক করেছে পুলিশ।

পা হারানো তরুণের নাম রাসেল সরকার (২৩)। আহত রাসেল সরকারের বাড়ি গাইবান্ধার পলাশবাড়ি এলাকায়। তার বাবার নাম শফিকুল ইসলাম। রাসেল বর্তমানে আদাবর সুনিবিড় হাউজিং এলাকায় থাকেন। একটি রেন্ট-এ-কার প্রতিষ্ঠানের হয়ে তিনি গাড়ি চালাতেন।

পা হারানো রাসেলকে প্রথমে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখান থেকে তাকে নেওয়া হয়েছে বেসরকারি স্কয়ার হাসপাতালে।

হাসপাতালে শুয়ে রাসেল সরকার জানান, একটি কোম্পানি তাঁর গাড়িটি ভাড়া করেছিল। ওই কাজ শেষ করে কেরানীগঞ্জ থেকে তিনি ঢাকায় ফিরছিলেন। ফেরার সময় যাত্রাবাড়ীতে গ্রিন লাইন পরিবহনের একটি বাস তাঁর গাড়িকে ধাক্কা দেয়। পরে গাড়ি থামিয়ে বাসের সামনে গিয়ে বাসচালককে নামতে বলেন রাসেল। শুরু হয়ে যায় বাসের চালক ও রাসেলের মধ্যে কথা-কাটাকাটি। এ সময় গ্রিন লাইন পরিবহনের চালক বাস চালানো শুরু করেন। তখন রাসেল সরতে গেলে ফ্লাইওভারের রেলিংয়ে আটকে পড়েন। তার পায়ের ওপর দিয়েই বাস চলে যায়। এতে তার বাঁ পা বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পথচারীরা রাসেলকে উদ্ধার করে দ্রুত ঢাকা মেডিকেলে নিয়ে যায়।

শাহবাগ থানার এসআই তরিকুল ইসলাম বলেন, গ্রিন লাইন পরিবহনের বাসটিকে আটক করা হয়েছে। বাসের চালকের নাম কবির মিয়া। তাকেও আটক করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি।