বিশ্বাস ও আস্থা নিয়ে প্রশাসনের শীর্ষে ১০ নারী

বাংলাদেশ প্রশাসনে সচিব ও সচিব পদমর্যাদায় কাজ করছেন মোট ৭৭ জন কর্মকর্তা। তাদের মধ্যে সচিব পদমর্যাদায় নারী কর্মকর্তা রয়েছেন ১০ জন। তারা বলেছেন, দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে বিশ্বাস ও যোগ্যতার মাধ্যমে আস্থা রাখতে পেরেছেন বলেই সরকার তাদের এই পদে নিয়োগ দিয়েছে। সেই আস্থা রেখেই দায়িত্ব পালন করছেন তাঁরা।

দেশের সচিব ও সচিব পদমর্যাদায় থাকা নারীরা হলেন নাসিমা বেগম, ড. নমিতা হালদার, আকতারী মমতাজ, জুয়েনা আজিজ, শামীমা নার্গিস, নাসরীন আকতার, হোসনে আরা বেগম, আফরোজা খান, মাফরূহা সুলতানা ও সাহিন আহমেদ চৌধুরী।

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নাসিমা বেগমের পরিচিতি নম্বর ১৬১১। প্রশাসনের শীর্ষ এই পদে দায়িত্ব পালনের জন্য নিজেকে যোগ্য করে তুলেছেন নিজেকে। তার কথায়, ‘কোনও বিশেষ সুবিধা নয়, সরকারের সব নিয়মনীতি অনুসরণ করেই এখানে এসেছি।’
কর্মজীবনের শুরু থেকে ১৯ বছর মাঠপর্যায়ে ম্যাজিস্ট্রেট, টিএনওসহ বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. নমিতা হালদারের পরিচিতি নম্বর ৪৫৭০। সরকারি কর্মকমিশনের (পিএসসি) সচিব হিসেবে আছেন আকতারী মমতাজ (পরিচিতি নম্বর ২৩৫৩)। তিনি এর আগে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

সচিবের পদমর্যাদায় পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের অধীনস্ত পরিকল্পনা কমিশনের ভৌত অবকাঠামো বিভাগের সদস্য হিসেবে আছেন জুয়েনা আজিজ। প্রশাসনে তার পরিচিতি নম্বর ৩৫৪৮। একইসঙ্গে সচিবের পদমর্যাদায় পরিকল্পনা কমিশনের সদস্য পদে দায়িত্ব পালন করছেন শামীমা নার্গিস (পরিচিতি নম্বর ৪৮৪১)।

সচিবের পদমর্যাদায় পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের নিয়ন্ত্রণাধীন জাতীয় প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান জাতীয় পরিকল্পনা ও উন্নয়ন একাডেমির মহাপরিচালক পদে আছেন নাসরীন আকতার। প্রশাসনে তার পরিচিতি নম্বর ৪৮২৮।

বর্তমান সরকারের আমলে ব্যাপকভাবে নারীর ক্ষমতায়ন হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব।
তাঁরা মনে করেন, শুধু প্রশাসনেই নয়, এমন কোনও খাত নেই যেখানে নারীরা দায়িত্ব পালন করছেন না। দেশের সবখানেই পুরুষের পাশাপাশি নারীরা যোগ্যতার প্রমাণ দিয়েছেন। একসাথে কাজ করে যাচ্ছেন।