বিরল দৃশ্য! লোকসভায় মোদিকে জড়িয়ে ধরলেন রাহুল

ছবি : সংগ্রহ

ভারতের লোকসভায় শুক্রবার (২০ জুলাই) দুপুরে এক বিরল দৃশ্যের অবতারণা হয়েছে। মোদি সরকারের বিরুদ্ধে আনা অনাস্থা প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নেয়ার সময় আচমকা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে জড়িয়ে ধরেন রাহুল গান্ধী। এ ঘটনায় কার্যত হকচকিয়ে যান প্রধানমন্ত্রী নিজেও।

লোকসভায় শুক্রবার সকাল ১১টা থেকে শুরু হয়েছে সরকারের বিরুদ্ধে আনীত অনাস্থা প্রস্তাবের ওপর আলোচনা৷ প্রত্যাশিতভাবেই বিরোধীদের আক্রমণের নিশানায় শাসকদল। এদিন সেই মেজাজেই শুরু হল অনাস্থা আলোচনা৷ একের পর অভিযোগ উঠে আসছে মোদি সরকারের বিরুদ্ধে। উলটো দিকে আত্মপক্ষ সমর্থন করে শাসকপক্ষের সাংসদরা জানাচ্ছেন এই অনাস্থার কোনও দরকার নেই।

এ অবস্থায় বক্তব্য শুরু করেন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী৷ তিনি মোদি সরকারের সমালোচনা করছিলেন টি-টোয়েন্টির মেজাজেই৷ অ্যাকাউন্টে পনেরো লাখ টাকা থেকে শুরু করে জিএসটি- একের পর এক ইস্যুতে সরকারকে কোণঠাসা করা শুরু হল৷ সংসদে তখন প্রবল হই-হট্টগোল৷ শাসকদলের সাংসদদের চিৎকারে তখন কান পাতা দায়, রাহুলের গলার স্বর প্রায় চাপাই পড়েছে৷

তবে বক্তব্যের একেবারে শেষ এসে নিজের বক্তৃতাকে রীতিমতো স্যুরিয়েল করে তুললেন রাহুল। এই রাহুল যেন শুধু বিরোধী নেতা নন, বরং আর পাঁচজন ভারতবাসী হিসেবেই হাজির হয়েছেন মোদির কাছে। সেখানে কোনও বিরোধিতা নেই, বিদ্বেষ নেই। বললেন, ‘আপনার যে আমাকে দেখতে পারেন না তা জানি। অনেকেই অনেক গালিগালাজ দেন। পাপ্পু বলে ডাকেন। কিন্তু আপনাদের জন্যে আমার মনে কোনও বিদ্বেষ নেই৷ বরং যে যত গালিগালাজ দেন, তাকে আরও ভালবাসাই আমার আদর্শ।’

আরো বলেন, সত্যিকার হিন্দু হওয়ার যে কী অর্থ তা মোদিই তাকে বুঝিয়ে দিয়েছেন। বক্তৃতা শেষ করেই তাই উঠে গেলেন প্রধানমন্ত্রীর কাছে। আলিঙ্গন করলেন তাকে৷ শাসকদলের সাংসদরাও তখন ঘটনার আকস্মিকতায় হতচকিত৷ খোদ প্রধানমন্ত্রীও চমকে উঠেছেন। কিন্তু এটাই রাহুলের মাস্টারস্ট্রোক৷ লোকসভার ইতিহাসে এ দৃশ্য নজিরবিহীন। এই প্রথমবার এরকম এক মুহূর্তের সাক্ষী থাকল ভারতীয় সংসদের ইতিহাস।

সূত্র : এনডিটিভি