বিএনপি-জামায়াতের উপর জনগণের আস্থা নেই : প্রধানমন্ত্রী

বিএনপি-জামায়াত জোট রাজনীতির নামে অগ্নিসন্ত্রাস চালিয়ে নিরীহ মানুষ হত্যা করেছে। তাই তাদের প্রতি দেশের জনগণের আস্থা নেই বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার (২৭ জুলাই) আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নেতাকর্মীরা গণভবনে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা জানাতে গেলে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে স্বেচ্ছাসেবক লীগকে তৃণমূলে সংগঠনকে শক্তিশালী করার পাশাপাশি জনগণের কাছে আওয়ামী লীগের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডগুলো তুলে ধরে আগামী নির্বাচনে নৌকার জন্য ভোট চাওয়ারও নির্দেশনা দেন শেখ হাসিনা।

বিএনপি-জামায়াতের কঠোর সমালোচনা করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাদের ওপর দেশের সাধারণ মানুষের আর কোনো আস্থা নেই। তারা ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করলেও কোরআন শরিফ পুড়িয়েছে। ছোট্ট শিশু থেকে শুরু করে কলেজছাত্রী কেউ রক্ষা পায়নি।

এতিমের টাকা আত্মসাৎ করে খালেদা জিয়া জেলে আছে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা প্রশ্ন রাখেন- যারা এতিমের অর্থের লোভ সামলাতে পারে না, তারা কীভাবে দেশ চালাবে?

জানা গেছে, স্বেচ্ছাসেবক লীগের ২৪ বছরপূর্তি উপলক্ষে সংগঠনটির নেতাকর্মীরা গণভবনে গিয়ে সাংগঠনিক নেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা জানান।

এ সময়ে শেখ হাসিনাকে স্বেচ্ছাসেবক লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর ব্যাচ পরিয়ে দেয়া হয়। এর পর প্রথমে সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। পরে সাংগঠনিক নেত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ শাখার নেতারা।

শেখ হাসিনা বলেন, নিজেদের ভাগ্য গড়তে রাজনীতি করে না আওয়ামী লীগ। মা-বাবাসহ পরিবারের সবাইকে হারিয়ে দেশে ফিরেছি। কারণ দেশের মানুষের গণতান্ত্রিক অধিকার, ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দেয়াই ছিল একমাত্র লক্ষ্য। জনকল্যাণমুখী রাজনীতি ছাড়া ব্যক্তিস্বার্থের রাজনীতি দেশকে কিছু দিতে পারে না। তা ইতিমধ্যে আওয়ামী লীগ প্রমাণ করেছে।

অনুষ্ঠানের শেষে প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়ের জন্মদিন উপলক্ষে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতাদের সঙ্গে নিয়ে কেক কাটেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।