বাহুবলে বাসের ধাক্কায় মা নিহত, ছেলেসহ আহত ৪

হবিগঞ্জের বাহুবলে বাসের ধাক্কায় স্বর্ণা আক্তার (২৮) নামে সিএনজিচালিত অটোরিকশার এক যাত্রী নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছে ওই নারীর ছেলেসহ চারজন। আহত ছেলের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলে জানা গেছে।

রোববার (১৩ মে) বিকেলে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের বাহুবল উপজেলার কালীবাড়ি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত স্বর্ণা আক্তার বাহুবল উপজেলার হিলালপুর গ্রামের তমিজ আলীর স্ত্রী। তিনি তার বাবার বাড়ি নবীগঞ্জের পানিউমদা থেকে শিশুসন্তানকে সঙ্গে নিয়ে স্বামীর বাড়ি ফিরছিলেন।

পুলিশ জানায়, বিকেলে পানিউমদা বাজার থেকে একটি অটোরিকশায় করে বাহুবলে যাচ্ছিলেন স্বর্ণা। পথে মিতালী পরিবহনের একটি বাস অটোরিকশাটিকে সামনে থেকে ধাক্কা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই স্বর্ণার মৃত্যু হয়। এ সময় আহত হন স্বর্ণার ছেলে ওসমান গনি (৭), বাহুবল উপজেলার পুটিজুরী গ্রামের হারুন মিয়ার স্ত্রী সুফিয়া আক্তার (৩০), তার মেয়ে নাফিসা আক্তার (৭) ও নবীগঞ্জের পানিউমদা গ্রামের মৃত ছগির মিয়ার ছেলে রব্বান মিয়া (৪৬)।

জানা যায়, নিহত স্বর্ণা আক্তারের ছেলে আহত ওসমান গনির অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। বাকিদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জসিম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।