বগুড়ায় মেয়েকে হত্যা করে মায়ের আত্মহত্যা

বগুড়ায় আড়াই বছরের শিশুকন্যাকে গলাটিপে হত্যার পর গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছেন এক মা।

রোববার (৩ জুন) জেলার সারিয়াকান্দি উপজেলার চন্দনবাইশার ঘুঘুমারা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

শিশুর নাম তানজিলা আক্তার। আর তার মায়ের নাম নাবিয়া খাতুন (২৫)। তিনি ওই গ্রামের তারাজুল ইসলামের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, তারাজুল ইসলাম ঢাকায় একটি পোশাক তৈরির কারখানায় কাজ করেন। দুই সন্তান তানিয়া (৫) ও তানজিলাকে নিয়ে তার স্ত্রী বাড়িতে থাকেন। রোববার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে তানিয়া খেলাধুলা করতে বাড়ির বাইরে যায়। ছোট মেয়েকে নিয়ে নাবিয়া ঘরে ছিলেন। এক পর্যায়ে শিশুকন্যাকে গলাটিপে হত্যা করেন তিনি। পরে নিজেও আত্মহত্যা করেন। খেলা শেষে বড় মেয়ে তানিয়া ঘরে প্রবেশ করে মা ও ছোট বোনকে অচেতন অবস্থায় দেখে প্রতিবেশীদের জানালে তারা দু’জনকে মৃত অবস্থায় দেখতে পায়। পরে পুলিশ লাশ দুটি উদ্ধার করে।

চন্দনবাইশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহাদত হোসেন দুলাল জানান, তারাজুল একজন হতদরিদ্র মানুষ। অভাবের কারণে ঢাকায় গিয়ে শ্রমিকের কাজ করেন। কী কারণে তার স্ত্রী সন্তানকে হত্যা করে নিজেও আত্মহত্যা করেছেন, তা বোঝা যাচ্ছে না।

সারিয়াকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সিরাজুল ইসলাম বলেন, আত্মহত্যার বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।