পূর্বাচল থেকে উদ্ধার হলেন অপহৃত আ.লীগ নেতা

রাজধানীর লালমাটিয়া থেকে অপহরণের ১১ ঘণ্টা পর কুমিল্লার তিতাস উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান পারভেজ হোসেন সরকারকে পূর্বাচলের ৩০০ ফুট এলাকায় পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

শুক্রবার (২৭ জুলাই) রাত সাড়ে ১২টায় মোহাম্মদপুর থানার ওসি জামাল উদ্দিন মীর বলেন, ৩০০ ফুট রাস্তায় তার সন্ধান পাওয়া গেছে। তবে কারা পারভেজকে তুলে নিয়ে গিয়েছিল তাৎক্ষণিকভাবে এই প্রশ্নের উত্তের মেলেনি।

এর আগে শুক্রবার দুপুরে লালমাটিয়া এলাকার নিজ বাসার সামনে থেকে কুমিল্লার তিতাস উপজেলার সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা পারভেজ হোসেন সরকারকে অপহরণ করা হয়।

পারভেজের খালাতো ভাই ফাহাদ মোহাম্মদ জানিয়েছিলেন, লালমাটিয়ার মিনার মসজিদ থেকে জুমার নামাজ শেষে তিনি নিজ বাসার দিকে যাচ্ছিলেন। এ সময় একজনের সাথে হাত মিলিয়ে কুশল বিনিময় করেন। এরপরই একটি কালো রঙের জিপ গাড়ি আসে এবং দুইজন মিলে তাকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে যায়। গাড়ির ভেতরেও দুইজন ছিল। তাদের সবার হাতে পিস্তল ও ওয়াকিটকি ছিল।

ঘটনাটি দ্রুত মোহাম্মদপুর থানা পুলিশকে জানানো হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে সিসিটিভি ফুটেজ পর্যালোচনা করেন। সেখানে দেখা গেছে, একটি কালো রঙের গাড়ি (ঢাকা মেট্রো-গ-১৪-২৫৭৭) বাসার সামনে এসে থামে এবং দুইজন লোক জোর করে পারভেজকে ওই গাড়িতে তুলে নিয়ে যায়।

পারভেজের পরিবার জানায়, তিতাসের বর্তমান ভাইস চেয়ারম্যান সোহেল শিকদারের সাথে অনেক দিন ধরেই রাজনৈতিক ঝামেলা চলছে পারভেজের। ওই এলাকায় প্রটোকল ছাড়া পারভেজ কখনো যাতায়াত করতেন না। গত বছর ওই এলাকায় সোহেলের লোকজন পারভেজের ওপর হামলা করেছিল।

জানা গেছে, লালমাটিয়া ‘সি’ ব্লকের ২৭ নম্বর সড়কের ৩০ নম্বর বাড়িতে দুই ছেলে ও স্ত্রীকে নিয়ে থাকেন পারভেজ। তিনি ২০০৯ সাল থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত তিতাসের উপজেলা চেয়ারম্যান ছিলেন। তিনি আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে কুমিল্লা-২ (তিতাস ও হোমনা) আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী। পারভেজ বর্তমানে কুমিল্লা উত্তরের সভাপতি।

মোহাম্মদপুর থানার ওসি জামাল উদ্দিন মীর বলেছিলেন, লালমাটিয়া থেকে পারভেজ হোসেন সরকার নামে এক ব্যক্তিকে তুলে নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। তিনি কুমিল্লার তিতাস উপজেলার চেয়ারম্যান ছিলেন। এ ঘটনায় মামলা হয়েছে। ঘটনাস্থলে থাকা সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ পর্যালোচনা করা হচ্ছে।