পর্দা উঠলো দুই বাংলার নাট্যোৎসবের

দুই বাংলার নাট্যোৎসবের উদ্বোধন করছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত

কবি নজরুল অডিটোরিয়াম মুক্তমঞ্চে সপ্তাহ দিনব্যাপী দুই বাংলার নাট্যোৎসবের পর্দা উঠেছে। সোমবার (১৯ মার্চ) সন্ধ্যায় অনুষ্ঠানের শুরুতেই সুইচ টিপে দুই বাংলার নাট্যোৎসবের বর্ণিল আয়োজনের শুভ উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের আয়োজনে নাট্যোৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এম.পি বলেন, সিলেটে নাট্যান্দোলনের ঐতিহ্য দীর্ঘদিনের। এখানে গুণী নাট্যজনেরা অভিনয়, নৈপূণ্য প্রদর্শন করেছেন এবং এই অঞ্চলের সংস্কৃতি চর্চায় বিশেষ ভ‚মিকা রেখেছেন।

তিনি বলেন, দুই বাংলার সংস্কৃতি চর্চায় রয়েছে গৌরবোজ্জ্বল ঐতিহ্য। সেই ঐতিহ্যকে ধরে রেখে নাট্য ও সংস্কৃতি চর্চা এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি সম্মিলিত নাট্য পরিষদের দুই বাংলা নাট্যোৎসবের উদ্যোগের প্রশংসা করে বলেন, আমাদের সংস্কৃতি চর্চার মধ্য দিয়ে দেশের অর্জনকে আরও সামনে নিয়ে যেতে হবে। তিনি উৎসবে অংশগ্রহণকারী ভারত ও বাংলাদেশের নাট্যদলকে অভিনন্দন জানান।

সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সভাপতি মিশফাক আহমেদ চৌধুরী মিশুর সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্তের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, ভারতের প্রবীণ নাট্যজন প্রবীর গুহ।

মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন নাট্য পরিষদের প্রধান পরিচালক অরিন্দম দত্ত চন্দন, পরিচালক চম্পক সরকার, কনোজ চক্রবর্তী বুলবুল। অনুষ্ঠানের শুরুতেই সুইচ টিপে দুই বাংলার নাট্যোৎসবের বর্ণিল আয়োজনের শুভ উদ্বোধন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। আয়োজক সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রধান অতিথি ও অন্যান্য অতিথিবৃন্দকে ফুল উত্তরীয় ও উৎসব স্মারক উপহার দেয়া হয়।

১৯-২৫ মার্চ পর্যন্ত প্রতিদিন সন্ধ্যা ৭টায় অডিটোরিয়াম মঞ্চে মঞ্চায়িত হবে কলকাতার ৪টি নাটক, ঢাকার ২টি নাটক ও সিলেটের ১টি নাটক।

এই প্রথমবারের মত সম্মিলিত নাট্য পরিষদ আয়োজিত দুই বাংলার নাট্যোৎসব উপলক্ষে সিলেট কবি নজরুল অডিটোরিয়াম চত্ত¡রকে বর্ণিল সাজে সজ্জিত করা হয়। উৎসব উপলক্ষে আয়োজন করা হয়েছে নাটকের পোষ্টার প্রদর্শনী। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সিলেটের বিভিন্ন শ্রেণীপেশা ও সূধীজন সহ নাট্য ও সংস্কৃতিক অঙ্গনের নেতৃবৃন্দের উপস্থিতি ছিল। উদ্বোধনী দিন কলকাতার নাট্যদল অল্টারনেটিভ লিডিং থিয়েটার মঞ্চস্থ করে প্রবীর গুহের রচনায় ও শুভ দ্বীপ গুহের নির্দেশনায় নাটক ‘লংমার্চ’। উৎসবের দ্বিতীয় দিন (২০ মার্চ) মঞ্চস্থ হবে কলকাতার নাটক ‘তিতাস একটি নদীর নাম’।

দুই বাংলার নাট্যোৎসবে প্রদর্শিত নাটকগুলো দেখার জন্য সবাইকে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন- সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সভাপতি মিশফাক আহমেদ চৌধুরী মিশু এবং সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্ত।