‘পদ্মাবতী’ পর্যালোচনায় দুই অধ্যাপক

সিলেট ভয়েস ডেস্ক : : জল কম ঘোলা হলো না বলিউডের ‘পদ্মাবতী’ নিয়ে। তবে এখনও পর্যন্ত সিনেমাটি ঠিক কবে মুক্তি পাচ্ছে তা নিশ্চিত নয়। সঞ্জয়লীলা বনশালীর এই আলোচিত সিনেমার রিভিউ বা পর্যালোচনা প্যানেলের সদস্য হতে রাজস্থানের দুই অধ্যাপককে এবার আমন্ত্রণ জানিয়েছে সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশন বা সিবিএফসি।জয়পুরের আগরওয়াল কলেজের অধ্যক্ষ আর এস খাঙ্গারকোট এবং রাজস্থান বিশ্ববিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক বি এল গুপ্তা বৃহস্পতিবার একথা জানান বলে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম পিঙ্কভিলার এক প্রতিবেদনে বলেছে।দুজনই রাজস্থান এবং রাজপুতানার ইতিহাস নিয়ে দীর্ঘ দিন পড়াশোনা করেছেন।খাঙ্গারকোট বলেন, তাকে সিবিএফসির চেয়ারম্যান প্রসূন যোশী মৌখিক আমন্ত্রণ জানিয়েছেন। এখনও লিখিত কোনও চিঠি সিবিএফসির পক্ষ থেকে তারা পাননি। তবে বনশালী বনাম রাজপুত সম্প্রদায়ের নিরিখে নয়, বিষয়টি তিনি বিচার করবেন পরিচালক এবং ইতিহাসের নিরিখে।বি এল গুপ্তা বলেছেন, ছবিটি সম্পূর্ণ দেখেই নিজের ঐতিহাসিক জ্ঞানের ভিত্তিতে তিনি মত দিতে পারবেন ইতিহাস ছবিতে বিকৃত হয়েছে কিনা।বিনোদন দুনিয়ায় সবচেয়ে বিতর্কিত বিষয়গুলির মধ্যে এ বছরের অন্যতম সেরা পদ্মাবতী মুক্তি পাওয়ার কথা ছিল ১ ডিসেম্বর।দীপিকা পাড়ুকোন-রণবীর সিং এবং শাহিদ কাপুর অভিনীত এই সিনেমার বিরুদ্ধে রাজপুত করণী সেনার আপত্তি এবং দেশজুড়ে বিতর্কের জেরে পিছিয়ে দেওয়া হয় মুক্তির তারিখ। সঞ্জয় লীলা বানসালীর এই ছবি মুক্তির জন্য সিবিএফসি-ও (সেন্ট্রাল বোর্ড অব ফিল্ম সার্টিফিকেশন) এখনও ছাড়পত্র দেয়নি।ছবির শুটিং পর্ব থেকেই আপত্তি তুলেছিল রাজপুত করণী সেনারা। অভিযোগ, এই ছবিতে রাজপুতদের ইতিহাসকে বিকৃত করা হয়েছে। পরিচালককে মারধর, দীপিকার মাথার দাম ঘোষণা, পোস্টার পোড়ানো থেকে শুরু করে তীব্র আন্দোলনে নামে করণী সেনারা।