নড়াইলে গৃহবধূ ও শিশু ধর্ষণ, আটক ১

নড়াইলে এক গৃহবধূ গণধর্ষণ এবং সাত বছরের এক শিশু ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অসুস্থ গৃহবধূ ও শিশুকে সোমবার (০২ জুলাই) দিবাগত রাতে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, সোমবার বিকেলে লোহাগড়া উপজেলার কোটাকোল ইউনিয়নের মাইগ্রামের তিন সন্তানের জননী তার বাড়ির পাশের মৎস্য ঘেরের পারে সবজি তুলতে যান। ঘেরের পাশেই তাদের কলাবাগানে এক কাঁধি কলা কাটা দেখে তিনি সেখানে এগিয়ে যান এবং কলা কে কেটেছে জানতে চেয়ে চিৎকার দেন। এসময় কলাবাগানে লুকিয়ে থাকা তেলকাড়া গ্রামের সুলতান মোল্লার ছেলে মিলনসহ ৩-৪ জন এগিয়ে এসে তার মুখ চেপে ধরে পালাক্রমে ধর্ষণ করে চলে যায়।

পরে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তাকে উদ্ধার করে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। ধর্ষণের শিকার ওই নারীর স্বামী ঢাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করেন।

অপরদিকে সোমবার বিকেলে নড়াইল পৌরসভার ধোপাখোলা গ্রামে সাত বছরের এক শিশুকে আম খাওয়ানোর লোভ দেখিয়ে ধর্ষণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত তুষার বিশ্বাস ওরফে ধেনু বিশ্বাসকে আটক করেছে পুলিশ। অসুস্থ ওই শিশুকে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। দুটি ধর্ষণের ঘটনায় সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা করা হয়েছে।