দোয়ারায় বন্যাদুর্গত এলাকা পরিদর্শন করেছেন এমপি মানিক

দোয়ারাবাজার উপজেলার বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন করেছেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটি ও সরকারী প্রতিষ্ঠান কমিটির সদস্য ছাতক-দোয়ারার সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান মানিক।

শুক্রবার (০৬ জুলাই) বিকেলে বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শনকালে তিনি বলেন, দোয়ারাবাজার উপজেলাটি বিশ্বের বৃষ্টিবহুল এলাকা ভারতের চেরাপুঞ্জির সবচেয়ে কাছাকাছি হওয়ার পাহাড়ি ঢল আসা মাত্রই এ উপজেলায় আঘাত করে। এর জন্য অন্য যে কোন উপজেলার চেয়ে বন্যায় এ উপজেলা বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এই সমস্যা স্থায়ীভাবে সমাধানের লক্ষ্যে এক হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে সুরমা নদী খনন প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে।

ভারত থেকে ধেয়ে আসা উপজেলার আরো কয়েকটি ছোট বড় নদী খনন হয়ে গেলে এই সমস্যা আর থাকবে না। এ সময় বন্যায় দরিদ্র ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে যথাসাধ্য ত্রাণ পৌঁছে দেয়ার চেষ্ঠা করা হচ্ছে বলে তিনি জানান।

বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন- উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক অধ্যক্ষ ইদ্রিস আলী বীর প্রতীক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মহুয়া মমতাজ, আওয়ামী লীগের যুগ্ন আহবায়ক সদর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান হাজী আব্দুল খালেক, দোয়ারাবাজার থানার অফিসার ইনচার্জ সুশীল রঞ্জন দাস, দোহালিয়া ইউপি চেয়ারম্যান কাজী মো. আনোয়ার মিয়া আনু, যুক্তরাজ্য প্রবাসি আওয়ামী লীগ নেতা রফিকুল ইসলম কিরন, আওয়ামী লীগ নেতা বরুন চন্দ্র দাস, ছাতক উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা মোশাহিদ আলী, দোহালিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. বশির উদ্দিন, জাহাঙ্গীর আলম, বিমল দাস, সাবেক ইউপি সদস্য আওয়ামী লীগ নেতা মো. তাজুল ইসলাম, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি মো. তাজুল ইসলাম, একরামুল হোসেন সুহেল, নিউটন দাস প্রমুখ।