দোয়ারায় পাওনা টাকা না দিয়ে উল্টো অভিযোগ, হুমকি-ধামকি

0
0

দোয়ারাবাজারে পাওনা টাকা না দিয়ে উল্টো অভিযোগ দিয়ে নানা ষড়যন্ত্রে মেতে উঠেছে প্রতিপক্ষ। এমনকি প্রাণনাশের হুমকি এবং ষড়যন্ত্রে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন।

উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের নতুন বৈঠাখাই গ্রামের আব্দুস ছাত্তারের পুত্র স্থানীয় চকবাজারে মোবাইল সার্ভিসিং ব্যবসায়ী আব্দুল হাকিমের সঙ্গে এ ঘটনা ঘটে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ৪/৫ মাস পূর্বে ব্যবসায়ী আব্দুল হাকিমের কাছ থেকে একই ইউনিয়নের এরুয়াখাই তিলোরাকান্দি গ্রামের শহিদ মুন্সির পুত্র সফর উদ্দিন মাটি কাটার ভেকু মেশিন কেনার জন্য প্রয়োজনীয় সাক্ষী ও প্রমাণাদির মাধ্যমে ২ লাখ টাকা ধার নেয়। পরে ভেকু মেশিন এনে মাটি কাটার ব্যবসায় নিয়োজিত হয়। কিন্তু পাওনাদারের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ রাখেনি এমন কি পাওনা টাকাও দেয়নি।

এ ঘটনায় স্থানীয় সালিশ বিচারক, জনপ্রতিনিধি এবং বাজার ব্যবসায়ী কমিটির সভাপতি সেক্রেটারিকে অবহিত করা হলেও টাকা উদ্ধার হয়নি। একপর্যায়ে সে পাওনা টাকার কথা অস্বীকার করে এবং পাওনাদারকে নানাভাবে হমকি-ধামকি দিতে থাকে। অপারগ হয়ে আব্দুল হাকিম পাওনা টাকা ফেরত চেয়ে আদালতের দারস্থ হলে প্রভাবশালী সফর উদ্দিন ও তার ভাই জসিম উদ্দিন চড়াও হয়ে পাওনাদারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন দপ্তরে উল্টো অভিযোগ করে এবং বিভিন্ন অনলাইন পোর্টাল এবং পত্রপত্রিকায় কাল্পনিক সংবাদ প্রকাশ করে পাওনাদারকে সামাজিকভাবে হেয়প্রতিপন্ন করে। টাকা চাইলে সে ভয়ভীতি দেখিয়ে পাল্টা সফর উদ্দিন হুমকি দেয় চকবাজারে ব্যবসা করতে হলে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দিতে হবে।

এ ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে পাওনাদার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে আরেকটি মামলা দায়ের করেন (বিবিধ মোকদ্দমা নং ৯০/২৩ইং)।

এ মামলায় উল্লেখ করা হয়, প্রতিপক্ষের লোকজন অত্যন্ত দাঙ্গাবাজ ও প্রভাবশালী। পাওনা টাকা ফেরত চেয়ে আদালতে অভিযোগ করায় ক্ষুব্ধ হয়ে আব্দুল হাকিমকে মারপিট করতে উদ্যোত হয় এবং প্রাণে মারার হুমকি দেয়।

আব্দুল হাকিম বলেন, সফর উদ্দিন ও তার আত্মীয় স্বজন অত্যন্ত প্রভাবশালী ও দাঙ্গাবাজ লোক। ২৯ নভেম্বর ২০২২ সালে ন্যাশনাল ব্যাংক লিমিটেড সুনামগঞ্জ শাখা থেকে ২ লাখ টাকা লোন তুলে সফর উদ্দিনকে ভেকু মেশিন কেনার জন্য ২ লাখ টাকা হাওলাত দেই। পরবর্তীতে দীর্ঘদিন যাবত টানাহেঁচড়া করেও পাওনা টাকা না দিয়ে উল্টো মিথ্যা অভিযোগ ও সংবাদ প্রকাশ করে আমাকে হয়রানী করতে থাকে। আমি আমার পাওনা টাকা ফেরত চাই এবং তাদের ষড়যন্ত্র থেকে পরিত্রাণ চাই।

জানতে চাইলে সফর উদ্দিন বলেন, ‘আমি ভেকু মেশিন কিনে এলাকায় মাটি কাটার ব্যবসা করেছি, কিন্তু আব্দুল হাকিমের কাছ থেকে টাকা ঋণ করিনি।’