টেস্টে থাকছে টস

টেস্ট ক্রিকেটে টস থাকা না থাকা নিয়ে বেশ কিছুদিন থেকেই আলোচনা চলছিলো। এ নিয়ে বিতর্কও কম হয়নি। তারকা-মহাতারকা ক্রিকেটাররা টসের পক্ষে-বিপক্ষে কথা বলেছেন। তবে শেষপর্যন্ত টসের পক্ষেই রায় দিয়েছে ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি)।

মঙ্গলবার (২৯ মে) এক বিবৃতিতে আইসিসি জানিয়েছে, টস টেস্ট ক্রিকেটের অবিচ্ছেদ্য অংশ। এটি থাকবে।

ভারতের মুম্বাইয়ে অনিল কুম্বলের নেতৃত্বে বৈঠকে বসেছিল ক্রিকেট কমিটি। টেস্ট ক্রিকেট নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কিছু সিদ্ধান্তের পাশাপাশি টেস্ট ক্রিকেটে টস চালু রাখার সিদ্ধান্তটিও গৃহীত হয়।

মূলত টেস্ট ক্রিকেটে টস খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি ফ্যাক্টর হলেও এটি কাজে লাগিয়ে স্বাগতিক দলগুলো নিজেদের ইচ্ছেমত উইকেট বানিয়ে প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার চেষ্টা করে। বিষয়টি সফরকারী দলের জন্য বেশ কঠিন ও অবিচার হয়ে যায়। এ বিষয়টি মাথায় রেখেই আলোচনা উঠেছিলো টেস্ট থেকে টস তুলে দেওয়ার।

কিন্তু মঙ্গলবার আইসিসির ক্রিকেট কমিটি বলেছে, টস স্বয়ংক্রিয়ভাবেই সফরকারী দলের পক্ষে যাওয়া উচিত। কিন্তু সমস্যা হচ্ছে, টস টেস্ট ক্রিকেটের অবিচ্ছেদ্য অংশ যা খেলার শুরু থেকেই ছিল এবং থাকবে।

বৈঠকের আলোচনায় টস ছাড়াও আসন্ন টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ, ক্রিকেটারদের আচরণবিধি ও বল ট্যাম্পারিংয়ের শাস্তির বিষয়টি নিয়ে বেশ কয়েকটি সুপারিশ নিয়ে কমিটি আলোচনা করে। তাদের মতে, টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে সিরিজ জয় নয়, ম্যাচ জয় বিবেচনায় রেখে পয়েন্ট নির্ধারণ করতে হবে। সেই সঙ্গে বল টেম্পারিংয়ের জন্য আরও কঠোর শাস্তির প্রস্তাব করেছেন তারা।