জৈন্তাপুরে সংঘর্ষ ও নিহতের ঘটনায় ৪ গ্রামে অগ্নিসংযোগ

ওয়াজ মাহফিলকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষ

জৈন্তাপুরে ওয়াজ মাহফিলকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষের সংঘর্ষে মুজ্জাম্মিল হোসেন (২৮) নামের এক মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। সে হরিপুর মাদ্রাসার দাওরা হাদিস বিভাগের শেষ বর্ষের ছাত্র। তার বাড়ি উপজেলার ডৌবাড়ী এলাকায়। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো অন্তত অর্ধশতাধিক লোক।

ঘটনার জের ধরে সেখানকার প্রায় তিন কিলোমিটার এলাকা জুড়ে চালানো হয়েছে ব্যাপক তান্ডব।
পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে এসব এলাকার বাড়ি ঘর। খবর পেয়ে বিজিবি, র‌্যাব ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

স্থানীয়রা জানান, উপজেলার আমবাড়িতে সোমবার সন্ধ্যায় আটরশি পীরের অনুসারীরা একটি ওয়াজ মাহফিলের আয়োজন করে। সেখানে ইসলাম বিরোধী স্থানীয় অপর একদল মুসল্লী সেখানে হাজির হয়। এ সময় ওয়াজ মাহফিল নিয়ে দু’পক্ষ তর্কাতর্কিতে লিপ্ত হলে এক পর্যায়ে তা সংঘর্ষে রুপ নেয়। সংঘর্ষে এক মাদ্রাসা ছাত্রের মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে হরিপুর বাজার মাদ্রাসা থেকে বিপুল সংখ্যক ছাত্র ঘটনাস্থলে যায়।

সেখানে গিয়ে তারা ব্যাপক তান্ডব চালায়। এ সময় আমবাড়ি ও কাঠালবাড়ি এলাকার তিন কিলোমিটার এলাকার বাড়ি ঘর পুড়িয়ে দেয়া হয়। এ সময় ভয়ে পুরুষরা বাড়ি ঘর ত্যাগ করে। মহিলারা কোন রকমে আত্মরক্ষা করেন। পরিস্থিতি বেগতিক হলে রাত ২টায় ঘটনাস্থলে বিজিবি তলব করা হয়। সিলেট থেকে ছুটে যায় র‌্যাব-৯ এর সদস্যরা। তারা গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
বর্তমানে সেখানকার পরিস্থিতি উত্তপ্ত রয়েছে। এলাকায় বিজিবি মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া সিলেটের জেলা জেলা প্রশাসক মো. রাহাত আনোয়ারসহ প্রশাসনের পদস্থ কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

জৈন্তাপুর থানার ওসি খান মোহাম্মদ ময়নুল জাকির একজনের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য ওসমানী মেডিকেল কলেজ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে বলে জানান ওসি।