জুড়ীতে মায়ের কোলের শিশুকে জিম্মি করে ডাকাতি, এলাকায় চাঞ্চল্য

0
0

মায়ের কোল থেকে শিশুকে জিম্মি করে অভিনব কায়দায় জুড়ীতে ডাকাতি হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এলাকায় বেশ চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলার জায়ফর নগর ইউনিয়নের বাহাদুরপুর গ্রামের টিপু সুলতানের স্ত্রী ফারজানা আক্তার দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে একা বাড়িতে ছিলেন।

প্রতিদিনের ন্যায় শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) টিপু সুলতান ও তার বড় ভাই সাবেক কুয়েত প্রবাসী আতিকুর রহমান বাইরে চলে যান। রাত আনুমানিক ৯টার দিকে দুজন লোক তার স্বামী খরচ পাঠিয়েছে বলে টিপু সুলতানের স্ত্রীকে গেট খুলতে বলে। এ সময় তিনি ছোট শিশু সন্তানকে কোলে নিয়ে গেট খুললে একজন তার গলা চেপে ধরে অপরজন সন্তানের গলা চেপে ধরে চিৎকার দিলে মেরে ফেলার হুমকি দেয়। পরে তাদেরকে একটি বন্দি করে ছোট সন্তানকে জিম্মি করে ঘরের দুই রুমে থাকা নগদ দুই লক্ষ পঁচিশ হাজার টাকা, সোনা ও দেড় লক্ষ টাকার চেক বইসহ দামী জিনিষপত্র নিয়ে যায়। এ ঘটনায় এলাকায় বেশ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

বাড়ির বাসিন্দা টিপু সুলতান জানান, ‘আমরা দুই ভাই পরিবার নিয়ে বসবাস করি। বড় ভাইয়ের স্ত্রী বাড়িতে ছিলেন না। আমার স্ত্রী দুই সন্তানকে নিয়ে রুমে ছিলেন।আমার ভাই খরচ পাঠিয়েছেন বলে কে এসে আমার স্ত্রীকে ডেকে গেটের তালা খুলতে বললে সে তালা খুলতেই তাকে চেপে ধরে আমার দশ মাসের সন্তানকে জিম্মি করে এক রুমে বন্দি করে সবকিছু নিয়ে যায়।

এলাকার বাসিন্দা আব্দুল লতিফ, রাসেল আহমদ, রনি জানান, শনিবার রাতে ১০ টার দিকে তারা খবর পেয়ে গিয়ে দেখেন, ঘরের সবকিছু ডাকাতরা তছনছ করে নিয়ে গেছে। বাড়ির মালিক ও তার স্ত্রী নির্বাক হয়ে গেছেন। তাদের সঞ্চিত সবকিছু হারিয়ে কোন উত্তর দিতে পারছেন না।

জানা গেছে, বাড়ির মালিক আতিকুর রহমান দীর্ঘদিন কুয়েত প্রবাসী ছিলেন। বর্তমানে তিনি ও তার ছোট ভাই টিপু সুলতান ব্যবসার সাথে জড়িত। ঘটনার সময় শুধু টিপু সুলতানের স্ত্রী বাড়িতে ছিলেন।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আজাদ মিয়া জানান, এ ঘটনা কোনভাবেই কাম্য নয়। সন্ধ্যার একটু পরেই এলাকার মধ্যে এরকম ডাকাতি হয়ে গেছে, যা অবিশ্বাসযোগ্য।

জুড়ী থানার ওসি মোশাররফ হোসেন জানান, ‘ডাকাতি না কি হয়েছে খবর পেয়ে আমার লোক পাঠিয়েছি। তারা ফিরে আসার পর বিস্তারিত জানতে পারবো।’