জনগণের প্রতি সরকারের দায়বদ্ধতা নেই : কাইয়ুম চৌধুরী

সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী বলেছেন, ভয়াবহ বন্যায় সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল আজ বিপর্যস্ত। কিন্তু আওয়ামী লীগের মন্ত্রী-এমপিরা জনগণের পাশে দাঁড়াচ্ছেন না। কারণ জনগণের ভোটে তারা নির্বাচিত হননি। এ কারণেই জনগণের প্রতি আওয়ামী লীগের কোনো দায়বদ্ধতা নেই। আর বিএনপির ওয়ার্ড থেকে শুরু করে কেন্দ্রীয় নেতারা পর্যন্ত বন্যার্ত মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছেন। কারণ বিএনপি হচ্ছে জনগণের দল।

বুধবার (৬ জুলাই) বিকেলে সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার বোয়ালজুর ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকায়তারেক রহমানের নির্দেশে ও সিলেট জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি, বোয়ালজুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুন নুর (নুর মিয়া) এর অর্থায়নে জেলা বিএনপির উদ্যোগে বন্যাদুর্গত ১১০০ পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা বিতরণকালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বন্যা শুরুর দিন থেকেই আমরা আমরা জনগণের পাশে আছি। আমাদের নেতা তারেক রহমান প্রবাসে থেকেও প্রতিনিয়ত আপনাদের খোঁজ-খবর নিচ্ছেন। বিএনপির নেতাকর্মীরা সবসময় দেশবাসীর পাশে আছে।

জেলা বিএনপির সাবেক সহ-সভাপতি আব্দুন নুরের সভাপতিত্বে ও ইউনিয়ন যুবদলের সভাপতি সাদেক আহমদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বালাগঞ্জ সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মুনিম, জেলা বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম শাহপরান, মাহবুব আলম, লন্ডন মহানগর যুবদলের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম মাসুম, উপজেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হেলাল আহমদ, শাহীন আলম জয় ও জেলা যুবদল নেতা আবুল কাশেম।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী বলেন, বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান খাল খনন ও কৃষি বিপ্লবের যে কর্মসূচি শুরু করেছিলেন ২০০৬ সালের পর থেকে তা বন্ধ হয়ে গেছে। এই কর্মসূচি অব্যাহত থাকলে বন্যার এই ভয়াবহ রূপ দেখতে হতো না। দেশের বিভিন্ন এলাকার সরকার দলের নেতাকর্মীরা অবৈধভাবে নদী-খাল দখল করে আছে। ফলে পানির ধারণ ক্ষমতা কমে গেছে। এই সরকার জনগণের কথা চিন্তা না করে দেশকে লুটেপুটে শেষ করে দিয়েছে। তাই সময় এসেছে এক দফা আন্দোলন করে তাদেরকে ক্ষমতা থেকে বিতাড়িত করার।

সভাপতির বক্তব্যে আব্দুন নুর বলেন, আমি দীর্ঘ সাড়ে ১৪ বছর এই ইউনিয়নের মানুষের সেবায় নিয়োজিত ছিলাম। এখন অসুস্থতা ভর করেছে। তারপরও আপনাদের যে কোনো প্রয়োজনে পাশে থাকার চেষ্টা করি। আপনারা আমাদের নেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সুস্থতা এবং আমাদের নেতা তারেক রহমানের দেশে ফেরার প্রতিবন্ধকতা দূর হওয়ার জন্য দোয়া করবেন। ইনশাআল্লাহ সুদিন একদিন আসবেই।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, বালাগঞ্জ ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি শেখ জামাল আহমদ খলকু, পূর্ব গৌরিপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক মির্জা বাসিত, উপজেলা বিএনপি নেতা জাহিদুর রহমান আরশ, মিজু আহমদ লিলু, উপজেলা যুবদলের আহবায়ক ফয়জুল হক, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহবায়ক সাবুল আহমদ, উপজেলা ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি আজমল হোসেন, উপজেলা যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক পুলক দাস দুরন্ত, উপজেলা ছাত্রদলের সদস্য সচিব জাহাঙ্গীর হেসেন, বোয়ালজুর ইউনিয়ন যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি রুহেল আহমদ, সাংগঠনিক সম্পাদক ফয়সল আহমদ প্রমুখ।

এর আগে সকালে ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলার উত্তর কুশিয়ারা ইউনিয়নের ইলাশপুর এলাকায় জেলা বিএনপির উদ্যোগে যুক্তরাজ্যের লিভারপুল বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা বিএনপির উপদেষ্টা এম এ হকের অনুদানে আর্থিক সহায়তা বিতরণ করেন সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আব্দুল কাইয়ুম চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট এমরান আহমদ চৌধুরী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য দেন, উপজেলা বিএনপির সভাপতি ওহিদুজ্জামান চৌধুরী সুফি, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান জাহিরুল ইসলাম মুরাদ, ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তসলিম আহমদ নেহার, জেলা বিএনপি নেতা রফিকুল ইসলাম শাহপরান, মাহবুব আলম, শহীন আলম জয়, উত্তর কুশিয়ারা ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ডা. আজাদ প্রমুখ।