জকিগঞ্জে মাত্র ২ ভোটের ব্যবধানে মেয়র হলেন আহাদ

জকিগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে নির্বাচিত হয়েছেন সাবেক মেয়র ও আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রয়াত আনোয়ার হোসেন সোনাউল্লা’র ছেলে সাবেক কাউন্সিলর ও উপজেলা যুবলীগের (পদত্যাগকারী) আহ্বায়ক আব্দুল আহাদ।

তিনি নারিকেল গাছ প্রতিকে ২০৮৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ফারুক আহমদ জগ প্রতিকে পেয়েছেন ২০৮১ ভোট। টানটান উত্তেজনা ছড়ানো ফলাফলে মাত্র ২ ভোটের ব্যবধানে আব্দুল আহাদ বিজয়ী হন।

নির্বাচনে মহিলা কাউন্সিলর পদে সংরক্ষিত ১নং ওয়ার্ডে আনারস প্রতীকে জোসনা খানম ১৪৭৩ ভোটে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী অটোরিকশা প্রতীকে সুনন্দা শুক্লা ১০৬৬ ভোট ও জবাফুল প্রতীকে তাছলিমা আক্তার জোছনা পেয়েছেন ৪২০ ভোট। সংরক্ষিত ২নং ওয়ার্ডে জবাফুল প্রতীকে মনারা বেগম ১০৯৮ ভোটে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী অটোরিকশা প্রতীকে দিলওয়ারা বেগম ৯১৬ ভোট, চশমা প্রতীকে রোসনা আক্তার ৭৪১ ভোট ও আনারস প্রতীকে জাহানারা বেগম পেয়েছেন ৬৫৭ ভোট। সংরক্ষিত ৩নং ওয়ার্ডে আনারস প্রতীকে রীনা আক্তার ১৩৫৬ ভোটে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী চশমা প্রতীকে সালেহা বেগম পেয়েছেন ১১৭১ ভোট।

এদিকে ১নং সাধারণ ওয়ার্ডে উটপাখি প্রতীকে আবুল কালাম ৫৪২ ভোটে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. আব্দুল জলিল পেয়েছেন ৩২৫ ভোট। ২নং ওয়ার্ডে টেবিল ল্যাম্প প্রতীকে মো. রুহুল আমীন রিপন ২৪৭ ভোটে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ডালিম প্রতীকে মাসুদ আহমদ পেয়েছেন ২৪৬ ভোট। ৩নং ওয়ার্ডে পানির বোতল প্রতীকে রিপন আহমদ ৬৬১ ভোটে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উটপাখি প্রতীকে আবুল কালাম আজাদ পেয়েছেন ৫৯৬ ভোট। ৪নং ওয়ার্ডে উটপাখি প্রতীকে মো. মাহবুবুর রহমান লিলু ৬০৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী পাঞ্জাবী প্রতীকে শাহাব উদ্দিন শাকিল পেয়েছেন ৬০৩ ভোট।

৫নং ওয়ার্ডে উটপাখি প্রতীকে মো. কামরুজ্জামান ৭৫৯ ভোটে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী পাঞ্জাবী প্রতীকে সমির উদ্দিন পেয়েছেন ৪৮৭ ভোট। ৬নং ওয়ার্ডে পাঞ্জাবী প্রতীকে আলমগীর হুছাইন পুতুল ৩৩২ ভোটে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ডালিম প্রতীকে দেলওয়ার হোসেন নজরুল পেয়েছেন ৩২৫ ভোট। ৭নং ওয়ার্ডে টেবিল ল্যাম্প প্রতীকে হেলাল আহমদ ২৪৬ ভোটে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী পাঞ্জাবী প্রতীকে আছদ্দর আলী পেয়েছেন ১৬৭ ভোট। ৮নং ওয়ার্ডে উটপাখি প্রতীকে হেলাল উদ্দিন ৩০৩ ভোটে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী পাঞ্জাবী প্রতীকে শামীম আহমদ পেয়েছেন ২৯৯ ভোট। ৯নং ওয়ার্ডে পানির বোতল প্রতীকে আমাল আহমদ ৪৭০ ভোটে নির্বাচিত হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী উটপাখি প্রতীকে আতাউর রহমান আতাই পেয়েছেন ৩৭৪ ভোট।