চুমুর ছবি ভাইরাল : মারধরের শিকার আলোকচিত্রী জীবন

সোমবার (২৩ জুলাই) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় যুগলের চুমু খাওয়ার ছবি তুলে রাতারাতি আলোচনায় চলে আসেন আলোকচিত্রী জীবন আহমেদ। সোমবার দিনব্যাপী ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আলোচনায় ছিল।

কিন্তু অভিযোগ পাওয়া গেছে, সেই ছবি তোলার ‘অপরাধে’ নিজের পেশার লোকদের হাতেই মারধরের শিকার হয়েছেন জীবন আহমেদ। জানা গেছে, টিএসসির যে স্থানে ছবিটি তোলা হয়েছে, মঙ্গলবার (২৪ জুলাই) সেখানেই তাঁকে প্রকাশ্যে মারধর করা হয়েছে এবং হামলাকারীরা সবাই আলোকচিত্রশিল্পী।

জীবন আহমেদের সহকর্মী মাকসুদুল হক ইমু জানান, মঙ্গলবার জীবন আহমেদকে মারধর করা হয়েছে। যারা মেরেছে, তারাও একই পেশার সাথে যুক্ত। মূলত জীবনের কাছে তারা সিরিজ ছবিগুলো চেয়ে না পেয়ে মারধর করে। জীবনকে মারধরের সময় তাঁকে বলা হয়েছে, এই পেশাকে সে নাকি জীবন কলঙ্কিত করেছে।

এ বিষয়ে আলোকচিত্রশিল্পী জীবন আহমেদ বলেন, আমার পেশার লোকেরাই আমাকে মেরেছে। আমি কিছু বলতাম না, তারা যদি আমাকে আড়ালে নিয়ে গিয়ে মারধর করতো। কিন্তু তারা আমাকে মেরেছে প্রকাশ্যে টিএসসিতে।

তিনি বলেন, আমাকে মারার সময় তারা বলছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টরের নির্দেশে মারছে। আমি নাকি কলঙ্কিত করেছি আলোকচিত্রশিল্পী সমাজকে। কিন্তু প্রক্টর স্যার একটু আগে ফোন দিয়ে বললেন, এরকম নির্দেশনা তিনি দেননি, দিতে পারেন না। আমিও জানি তারা গায়ের ঝাল মিটিয়েছে।

মারধরের ঘটনা পর জীবন আহমেদ মঙ্গলবার ফেসবুকে লিখেছেন, ‘আজ থেকে সাংবাদিকতা থেকে বিদায় নিলাম’।

উল্লেখ্য, সোমবার জীবন আহমেদের তোলা আলোকচিত্রটি প্রথমে তার নিজস্ব কর্মরত অনলাইন পোর্টালে প্রকাশিত হয়। এরপর তাঁর ফেসবুক পোস্ট থেকে ছবিটি অনলাইনে ছড়িয়ে পড়ে।