চুনারুঘাটে ১৯ শিক্ষার্থী হঠাৎ অজ্ঞান

হবিগঞ্জের চুনারুঘাট উপজেলার শাকির মোহাম্মদ উচ্চ বিদ্যালয়ের ১৯ শিক্ষার্থী হঠাৎ অজ্ঞান হয়ে পড়েছে। এ ঘটনায় অভিভাবক এবং স্থানীয় লোকজনের মাঝে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। শনিবার (২৮ জুলাই) দুপুরে এ ঘটনাটি ঘটে। অসুস্থ ১৩ জনকে তাৎক্ষণিক ভাবে চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে স্যালাইন পুশ করা হয়েছে।

হাসপাতালে ভর্তি শিক্ষার্থীরা হল- ঝুমা আক্তার, সোহাগ মিয়া, তন্বী আক্তার, লিজা আক্তার, নাহিদা বেগম, লোপা আক্তার, নাজমুল মিয়া, শাকিল মিয়া, রেহানা আক্তার, সাবিকুন্নাহার, সোহেদা আক্তার, লিমা আক্তার এবং রমজানুন্নেছা।

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সামছুল হক চৌধুরী জানান, সম্প্রতি তাঁর শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে কয়েকদিন ধরে প্রতিদিনই দুয়েকজন ছাত্র অসুস্থ হয়। শনিবার দুপুরে ১৯ শিক্ষার্থী হঠাৎ অজ্ঞাত হয়ে পড়লে সাথে সাথে তাদেরকে চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এনে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আবু তাহের, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মঈন উদ্দিন ইকবালসহ কর্মকর্তারা হাসপাতালে ছুটে আসেন।

চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে তিনি আরো জানান, শিক্ষার্থীরা কেন অসুস্থ হয়েছে তা এখন বলা যাচ্ছে না। তাদের রক্ত সংগ্রহ করে ঢাকায় পাঠানো হচ্ছে। সেখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর নিশ্চিত হওয়া যাবে তারা কি কারণে অজ্ঞান হয়ে পড়েছে।

এ ব্যাপারে চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা গোলাম মহিউদ্দিন জানান, অসুস্থ শিক্ষার্থীদেরকে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। তবে তারা কি কারণে অজ্ঞান হয়ে পড়েছে, তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। তাদের সকলকেই স্যালাইন পুশ করা হয়েছে। এর মাঝে কয়েকজনের জ্ঞান ফিরেছে এবং গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় দুইজনকে হবিগঞ্জ আধুনিক জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে।

এদিকে শিক্ষার্থীদের সাথে আসা অভিভাবকরা হাসপাতালে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। এ ঘটনায় অভিভাবকসহ সকলেই আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন।