গোলাপগঞ্জে দিনে অভিযান রাতে টিলা কাটা

প্রতীকী ছবি

স্থানীয় প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা থাকার পরও গোলাপগঞ্জে বেপরোয়াভাবে টিলা কাটা অব্যাহত রয়েছে। দিনের বেলায় স্থানীয় প্রশাসন উপজেলার আমুড়া এলাকায় টিলা কাটার বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে অর্ধ লক্ষ টাকা জরিমানা করার পরও বন্ধ হয়নি টিলা কাটা। রাতের আঁধারে আবারও টিলা কাটা শুরু করে দুবৃত্তরা।

বুধবার (১১ জুলাই) আমুড়া ইউনিয়নের ধারাবহর এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সুমন্ত ব্যানার্জি। এসময় মাটি বহন কাজে ব্যবহৃত দু’টি ট্রাকও জব্দ করা হয়। পরে আর টিলা কাটা হবেনা বলে মুচলেকা দেয়ার পর ছেড়ে দেয়া হয় আটককৃত ট্রাক দু’টি। অভিযান শেষে ফেরার পর পরই আবার টিলা কাটতে শুরু করে স্থানীয় ভুমিখেকোরা। মাটি বহন করতে লাগানো হয় একই সাথে ৬টি বড় ট্রাক।

বৃহস্পতিবার (১২ জুলাই) আবারও একই স্থানে অভিযান পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনায় ছিলেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সুমন্ত ব্যানার্জি। এসময় মাটি বহন কাজে নিয়োজিত ৬টি ট্রাক আটক করেন তিনি। এসময় অভিযানের টের পেয়ে পালিয়ে যায় টিলাকাটার সাথে সম্পৃক্তরা।

পরে মোটর যান অধ্যাদেশ আইন অনুযায়ী ট্রাক চালক ইদন মিয়া (৫০), মজনু মিয়া (৩৫), আব্দুল আজিজ (২৮), মোঃ জাকির হোসেন (৩৮), শফিকুল ইসলাম (৩৫)কে এক হাজার করে মোট হাজার করে ৬ হাজার টাকা জরিমানা করেন। জানতে চাইলে এক্সিকিউটিভ ম্যাজেস্ট্যাট সুমন্ত ব্যানার্জি বৃহস্পতিবার জানান, উপজেলায় টিলা ও পাহাড় কাটার বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত থাকবে।