গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের স্থগিতাদেশ বাতিল

২৮ জুনের মধ্যে জিসিসি নির্বাচন আয়োজনের নির্দেশ

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের স্থগিতাদেশ বাতিল করেছে আপিল বিভাগ। ফলে নির্বাচন অনুষ্ঠানে আর কোনো বাধা থাকল না। একইসঙ্গে আগামী ২৮ জুনের মধ্যে এই নির্বাচন আয়োজনের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (১০ মে) প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদেস্যর আপিল বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

বৃহস্পতিবার সকালে জিসিসি নির্বাচনের ওপর হাইকোর্টের থাকা স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে করা আপিল আবেদনের শুনানি হয়। শুনানি শেষে আদালত এ সংক্রান্ত নির্দেশ দেন আদালত।

এর আগে বুধবার (৯ মে) নির্বাচনের স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশন (ইসি) আপিলের সিদ্ধান্তের কথা জানিয়ে সময় চেয়ে আবেদন করেন। পরে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন আপিল বেঞ্চ আপিলের শুনানির জন্য বৃহস্পতিবার ধার্য করেছিলেন।

গত ৬ মে জিসিসি নির্বাচন তিন মাসের জন্য স্থগিত করেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে সাভারের শিমুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের ছয়টি মৌজাকে জিসিসি’র অন্তর্ভুক্ত করা গেজেট এবং নির্বাচন সংক্রান্ত তফসিল কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় সচিব, ঢাকার বিভাগীয় কমিশনার, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব (সিটি করপোরেশন-২), ঢাকা জেলা প্রশাসক, গাজীপুর সিটি করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, প্রধান নির্বাচন কমিশনারসহ ৯ জনকে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি নাঈমা হায়দার ও বিচার জাফর আহমদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এরপর গত ৭ মে হাইকোর্টের স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে আপিল করেন জিসিসি নির্বাচনের বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার। এরপর মঙ্গলবার (৮ মে) একই বিষয়ে আপিল আবেদন করেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম।

প্রসঙ্গত, তফসিল অনুযায়ী আগামী ১৫ মে গাজীপুর সিটি নির্বাচনের ভোটগ্রহণ হওয়ার কথা ছিল।