কলঙ্কের ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার হার

হারটা অনুমেয়ই ছিলো। তবু ক্রিকেট বলেই হয়তো আগ বাড়িয়ে বলা হয়নি। বল টেম্পারিং বিতর্কের পর স্বভাবতই মানসিকভাবে বিপর্যস্ত অস্ট্রেলিয়া দল, তার ওপর দক্ষিণ আফ্রিকার ছুড়ে দেয়া পাহাড়সম রান তাড়া করতে গিয়ে হুড়মুড় করে ভেঙে পড়ে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটিং লাইন।

দিনের শুরুতে নেতৃত্বে বদল। দিনের খেলা চলার মাঝেই এলো পদত্যাগী অধিনায়কের নিষেধাজ্ঞার খবর। সব মিলিয়ে বিপর্যস্ত অস্ট্রেলিয়া। মাঠের ক্রিকেটে যেন সেটিরই প্রতিফলন। চতুর্থ দিনে তাই প্রোটিয়াদের কাছে পাত্তাই পেলো না তারা। ৩২২ রানের বিশাল জয়ে সিরিজে ২-১ এ এগিয়ে গেল দক্ষিণ আফ্রিকা।

চতুর্থ দিনে রোববার নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৭৩ রানে অলআউট হয় দক্ষিণ আফ্রিকা। ৪৩০ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে ১০৭ রানেই অলআউট অস্ট্রেলিয়া। ৪৩০ রানের বিশাল লক্ষ্য তাড়া করতে গিয়ে অস্ট্রেলিয়ার শুরুটা ছিল মোটামুটি ভালোই। টেম্পারিং বিতর্কের আলোচিত চরিত্র ক্যামেরন ব্যানক্রফট ও ডেভিড ওয়ার্নার উদ্বোধনী জুটিতে তোলেন ৫৭ রান। ব্যানক্রফটের রান আউটে ভাঙে জুটি। ওয়ার্নারকে আরও একবার ফেরান রাবাদা। কেশভ মহারাজ পরপর দুই বলে ফেরান উসমান খাওয়াজা ও শন মার্শকে।

২ রানের মধ্যে নেই ৪ উইকেট! সেই ধাক্কা আর সামাল দিতে পারেনি চাপে থাকা অস্ট্রেলিয়া। মর্নে মর্কেলের তোপে ইনিংস শেষ ১০৭ রানেই। উদ্বোধনী জুটির পর ১৯.৪ ওভারের মধ্যে ৫০ রানে হারিয়েছে তারা ১০ উইকেট। ২৩ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন মর্কেল; টেস্টে তার অষ্টম ৫ উইকেট। সব মিলিয়ে ম্যাচে ১১০ রানে ৯ উইকেট। ক্যারিয়ারের শেষ টেস্টের আগের টেস্টে ক্যারিয়ার সেরা পারফরম্যান্সে ম্যান অব দা ম্যাচ এই ফাস্ট বোলারই।

দিনের খেলা যখন শুরু হয়, তখন দক্ষিণ আফ্রিকার স্কোর ৫ উইকেটে ২৩৮ রান। ৫১ রানে দিন শুরু করা এবি ডি ভিলিয়ার্স ফিরে যান ৬৩ রানেই। তবে প্রোটিয়াদের থামিয়ে রাখা যায়নি। বলের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে রান করেছেন কুইন্টন ডি কক ও ভার্নন ফিল্যান্ডার। ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৬৫ রান করে ফেরেন ডি কক। লোয়ার অর্ডারদের নিয়ে রান বাড়ান ফিল্যান্ডার। অপরাজিত থাকেন ৫২ রানে।

অস্ট্রেলিয়া দলের কিঞ্চিত প্রাপ্তি নাথান লায়নের ৩০০তম উইকেট প্রাপ্তি। প্রথম অস্ট্রেলিয়ান অফ স্পিনার হিসেবে তিনি গড়েন এই কীর্তি।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
দক্ষিণ আফ্রিকা ১ম ইনিংস: ৩১১
অস্ট্রেলিয়া ১ম ইনিংস: ২৫৫
দক্ষিণ আফ্রিকা ২য় ইনিংস: ১১২.১ ওভারে ৩৭৩ (আগের দিন ২৩৮/৫) (ডি ভিলিয়ার্স ৬৩, ডি কক ৬৫, ফিল্যান্ডার ৫২*, স্টার্ক ১/৯৮, হেইজেলউড ৩/৬৯, কামিন্স ৩/৬৭, লায়ন ৩/১০২)।
অস্ট্রেলিয়া ২য় ইনিংস: (লক্ষ্য ৪৩০) ৩৯.৪ ওভারে ১০৭ (ব্যানক্রফট ২৬, ওয়ার্নার ৩২; মর্কেল ৫/২৩, মহারাজ ২/৩২)
ফল: দক্ষিণ আফ্রিকা ৩২২ রানে জয়ী
ম্যান অব দা ম্যাচ: মর্নে মর্কেল