কমছে গড় আয়ু ও শিক্ষার হার, বাড়ছে দারিদ্র্য

জাতিসংঘের প্রতিবেদন

মহামারির পর থেকে বিশ্বজুড়ে জীবনযাত্রায় এসেছে নানা পরিবর্তন। পরিবেশের পাশাপাশি সামাজিক দিক থেকেও নানা পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে মানবজাতি।

জাতিসংঘের নতুন প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মহামারির পর থেকে বিশ্বের অনেক দেশেই মানুষের গড় আয়ু ও শিক্ষার হার কমতে শুরু করেছে। অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির দিক থেকে কয়েক দশকের অগ্রগতি থেকে বঞ্চিত হয়েছে পৃথিবী।

১৯৯০ সালে সুস্থতার পরিমাপ হিসাবে উন্নয়ন সূচক চালু করেছিল জাতিসংঘ। গত দুই বছরে দেখা যাচ্ছে প্রতি ১০টি দেশের মধ্যে ৯টি দেশই জাতিসংঘের এই উন্নয়ন সূচকে পিছিয়ে পড়েছে।

এই বছর সূচকের শীর্ষে রয়েছে সুইজারল্যান্ড। দেশটির জনগণের গড় আয়ু ৮৪ বছর। সেখানে সবার শিক্ষাজীবন গড়ে সাড়ে ১৬ বছর পর্যন্ত স্থায়ী হয়। বছরে গড়ে ৬৬ হাজার ডলার আয় করেন সবাই।

এই তালিকার একেবারে তলানিতে রয়েছে আফ্রিকার দেশ দক্ষিণ সুদান। সেখানে মানুষের আয়ু ৫৫ বছর। গড়ে মাত্র সাড়ে ৫ বছর পড়াশোনা করেন সবাই। আর বছরে উপার্জন ৭৬৮ ডলার মাত্র।

দেখা গেছে এবার ১৯১টি দেশের অধিকাংশেরই সূচকে পতন ঘটেছে। বিশেষ করে আয়ুষ্কাল কমেছে প্রায় সব দেশে। এছাড়া উন্নয়নের মাত্রা ২০১৬ সাল পর্যন্ত পিছিয়ে গেছে।

করোনা মহামারি, ইউক্রেনের যুদ্ধ আর জলবায়ু পরিবর্তনের কারণেই বৈশ্বিক উন্নয়ন বিপরীতমুখী হয়েছে বলে মনে করছে জাতিসংঘ।