ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে এবার সাতে বাংলাদেশ

টেস্ট র‌্যাঙ্কিংয়ের পর এবার ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়েও উন্নতি ঘটেছে বাংলাদেশের। বুধবার ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ের বার্ষিক আপডেট প্রকাশ করেছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা আইসিসি। সেখানে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও শ্রীলঙ্কাকে টপকে সপ্তম স্থানে উঠে এসেছে বাংলাদেশ। এর আগে গেল বছরের মে মাসে র‌্যাঙ্কিংয়ের ষষ্ঠ স্থানে উঠেছিল টাইগাররা। এদিকে ২০১৩ সালের পর আবার র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে উঠে এসেছে ইংল্যান্ড।

এক ক্যালেন্ডার বর্ষের পরিসংখ্যান নিয়ে বুধবার (২ মে) র‌্যাঙ্কিং আপডেট প্রকাশ করেছে আইসিসি। নতুন র‌্যাঙ্কিংয়ে ১২৫ রেটিং পয়েন্ট ভারতকে হটিয়ে শীর্ষস্থানে উঠে এসেছে ইংল্যান্ড। ইংলিশদের চেয়ে ৩ পয়েন্ট কম নিয়ে দ্বিতীয়তে নেমে গেছে বিরাট কোহলির ভারত। দক্ষিণ আফ্রিকা নেমে গেছে তৃতীয় স্থানে। তাদের রেটিং পয়েন্ট ১১৩। এছাড়া চতুর্থ, পঞ্চম ও ষষ্ঠ স্থানে আছে যথাক্রমে নিউজিল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া ও পাকিস্তান। সপ্তম স্থানে থাকা বাংলাদেশের পর শীর্ষ দশের শেষ তিনটি দল যথাক্রমে শ্রীলঙ্কা, ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও আফগানিস্তান।

বাংলাদেশ ৯৩ রেটিং পয়েন্ট নিয়ে সপ্তম স্থানে আছে। এর আগে ২০১৫ সালের শুরুতে পাকিস্তানকে হোয়াইটওয়াশ করে প্রথমবারের মতো ওয়ানডের বিশ্ব র‍্যাঙ্কিংয়ের অষ্টম স্থানে উঠে এসেছিল মাশরাফী বিন মর্তুজার দল। তারপর আরো দাপটের ভারতকে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের প্রথম ম্যাচেই হারিয়ে সপ্তম স্থান অধিকারে নিয়েছিল টাইগাররা। তারো অনেক পরে ২০১৭ এর মে মাসে প্রকাশিত আইসিসির ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে এক ধাপ উন্নতি করে ষষ্ঠ স্থানে উঠে আসে টাইগাররা।

তবে খুব বেশিদিন এ অবস্থান ধরে রাখতে পারেনি তারা। ষষ্ঠই ছিল বাংলাদেশের জন্য সর্বোচ্চ। আইসিসির ২০১৯ বিশ্বকাপে সরাসরি খেলার যোগ্যতাও টাইগাররা অর্জন করে র‍্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ আটে থাকায়। তবে বাংলাদেশ গেল বছরই ৬ থেকে ৭ এ গিয়ে ৮ এ নেমে আসে। সেখান থেকে আবার ৭ এ ফিরল তারা।

এদিকে টেস্ট ও ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে উন্নতি করলেও অবনমন ঘটেছে টি-টুয়েন্টিতে। এ সংস্করণে বাংলাদেশের অবস্থান এখন দশ নম্বরে। আর দক্ষিণ এশিয়ার উদীয়মান দল আফগানিস্তান উঠে এসেছে আট নম্বরে। এ সংস্করণের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছে পাকিস্তান।

সূত্র : আইসিসি