উচ্চ মাধ্যমিকে অকৃতকার্য, রাজশাহীতে ৮ শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার চেষ্টা

এবারের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ায় রাজশাহীতে ৮ শিক্ষার্থী আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। গলায় ফাঁস দিয়ে, বিষপান, হারপিক ও ট্যাবলেট সেবন করে তারা আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়।

বৃহস্পতিবার (১৯ জুলাই) দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত তাদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আত্মহত্যার চেষ্টা চালানোদের মধ্যে রয়েছে- রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার রক্ষিতপাড়া গ্রামের আমজাদের ছেলে তপু, নগরীর বোয়ালিয়া থানার সাগরপাড়া এলাকার মাহবুবের মেয়ে ইতি, এয়ারপোর্ট থানার বায়াবাজার এলাকার বাসিন্দা সোহানা, আরএমপির কাটাখালী থানা এলাকার আজগরের মেয়ে শিখা ও নাটোর জেলার বাঁশবাড়িয়া এলাকার সেলিমের মেয়ে শ্যামা। বাকি তিনজনের নাম পাওয়া যায়নি।

রামেক হাসপাতাল সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার পরীক্ষার ফলে অকৃতকার্য হওয়ায় অন্তত আট শিক্ষার্থী বিভিন্নভাবে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। পরে পরিবারের লোকজন তাদের উদ্ধার করে রমেক হাসপাতালে ভর্তি করেন। বর্তমানে তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

এ বিষয়ে হাসপাতাল পুলিশ বক্সের ইনচার্জ এএসআই রফিক জানান, পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ায় আটজন আত্মহত্যার চেষ্টা করে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে।

উল্লেখ্য, বৃহস্পতিবার এ বছরের এইচএসসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ হয়। রাজশাহী বোর্ডে এবার পাসের হার ৬৯ দশমিক ৫১ শতাংশ। গত সাত বছরের মধ্যে এ বছর সবচেয়ে খারাপ ফল হয়েছে রাজশাহী বোর্ডে।