ঈদের দিন সিলেটে ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা

সারাদেশে শনিবার (১৬ জুন) উদযাপিত হবে পবিত্র ঈদুল ফিতর। এদিন সকালে সিলেটে হতে পারে ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণ। পাশাপাশি চট্টগ্রাম ও ময়মনসিংহ বিভাগেও হতে পারে বৃষ্টিপাত।

আবহাওয়াবিদ আরিফ হোসেন এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, প্রবল মৌসুমী বায়ুর কারণে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালা সৃষ্টি অব্যাহত রয়েছে। এর প্রভাবে আজ (শুক্রবার) দুপুর থেকে আগামীকাল (শনিবার) সকাল ১১টার মধ্যে সিলেট ও ময়মনসিংহ বিভাগের কোথাও কোথাও দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়াসহ ভারী থেকে অতিভারী বর্ষণ হতে পারে।

আবহাওয়া অফিস জানায়, সিলেট, রংপুর, ময়মনসিংহ ও চট্টগ্রাম বিভাগের অনেক জায়গায়, ঢাকা ও বরিশাল বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা হাওয়া ও বিজলি চমকানোসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে এবং দেশের অন্যত্র আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে।

অতি ভারী বর্ষণের কারণে সিলেট বিভাগের পাহাড়ি এলাকার কোথাও কোথাও ভূমিধ্বসেরও সম্ভাবনা রয়েছে বলেও জানানো হয়।

আবহাওয়া অফিস আরও জানায়, মৌসুমী বায়ুর প্রভাবে বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরসমূহের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মংলা ও পায়রা সমূদ্র বন্দরসমূহকে আগামীকাল সকাল ১১টা পর্যন্ত ৩ নম্বর এবং নদী বন্দরসমূহকে ২ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারসমূহকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। সেই সাথে তাদেরকে গভীর সাগরে বিচরণ না করতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়া চিত্রের সংক্ষিপ্তসারে বলা হয়েছে, দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ু বাংলাদেশে উপর মোটামুটি সক্রিয় রয়েছে এবং উত্তর বঙ্গোপসাগরে তা মাঝারি থেকে প্রবল অবস্থায় রয়েছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালার সৃষ্টি অব্যাহত রয়েছে।