আর্জেন্টিনার কোচের বিরুদ্ধে মেসি-আগুয়েরোরা

আর্জেন্টিনার কোচ হোর্হে সাম্পাওলি।

আইসল্যান্ডের বিপক্ষে ড্রয়ের পর ক্রোয়েশিয়ার কাছে ৩-০ গোলে হেরে প্রথম রাউন্ড থেকেই আর্জেন্টিনার বিদায়ের শঙ্কা দেখা দিয়েছে। এই অবস্থায় শোনা যাচ্ছে খেলোয়াড়দের সঙ্গে সম্পর্কের চূড়ান্ত অবনতি হয়েছে কোচ হোর্হে সাম্পাওলির।

গতরাতে ক্রোয়েশিয়ার কাছে ৩-০ গোলে বিধ্বস্ত হয়ে বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ড থেকেই বাদ পড়ার শঙ্কায় আর্জেন্টিনার। টানা দুই ম্যাচে গড়পড়তা পারফরম্যান্স এবারের বিশ্বকাপে আর্জেন্টাইন দলটিকে দাঁড় করিইয়েছে প্রশ্নের সামনে। এমন অবস্থায় আর্জেন্টিনা শিবিরে নাকি দেখা দিয়েছে কোন্দল। বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচে নাকি হোর্হে সাম্পাওলিকে কোচ হিসেবে চাচ্ছেন না মেসি-আগুয়েরো।

ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে সবচেয়ে বেশি চোখে পড়েছে সাম্পাওলির বিচিত্র কৌশল আর মেসির অবাক করা নিষ্ক্রিয়তা। জাতীয় সংগীত চলার সময়ই মেসিকে দেখে মনে হয়েছিল তাঁর মাথায় যেন ভর করেছে রাজ্যের দুশ্চিন্তা। সাম্পাওলির বিচিত্র কৌশলের সঙ্গে মেসি বা আগুয়েরোদের কেউই খাপ খাওয়াতে পারেননি, তাঁর কৌশল পছন্দ করতে পারেননি—এমনটাই শোনা যাচ্ছে এখন। যে কারণে দল থেকে সাম্পাওলির বিদায় চাচ্ছেন তাঁরা, আর নাইজেরিয়ার বিপক্ষে শেষ ম্যাচে দলের কোচ হিসেবে চাচ্ছেন বিশ্বকাপজয়ী সাবেক তারকা হোর্হে বুরুচাগাকে।

জানা গেছে, ম্যাচ শেষেই নাকি দলের খেলোয়াড়েরা নিজেদের মধ্যে বৈঠক করে জানিয়েছেন, সাম্পাওলির অধীনে তাঁরা আর খেলতে চান না।

মেসিরা চাইলেও সাম্পাওলির ছাঁটাই আর্জেন্টাইন ফুটবল ফেডারেশনের জন্য খুব সহজ কিছু হবে না। সাম্পাওলির সঙ্গে আর্জেন্টিনা দলের দীর্ঘমেয়াদি চুক্তি রয়েছে, সাম্পাওলিকে এখনই যদি ফেডারেশন ছাঁটাই করে, তাহলে তাঁকে ক্ষতিপূরণ বাবদ ২০ মিলিয়ন ডলার প্রদান করতে হবে। টাকার অঙ্কটা আর্জেন্টাইন ফুটবলের জন্য বেশ বড়ই।

এদিকে শোনা যাচ্ছে আর্জেন্টিনার বেশ কয়েকজন ফুটবল সাংবাদিক নিজেদের টুইটারে জানিয়েছেন, সাম্পাওলিকে ছাঁটাই করা না হলে সিনিয়র খেলোয়াড়েরা নিজেরাই অবসরে চলে যেতে পারেন।

এঁদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হচ্ছেন অধিনায়ক লিওনেল মেসি, গঞ্জালো হিগুয়েইন, সার্জিও আগুয়েরো, অ্যাঙ্গেল ডি মারিয়া, মার্কোস রোহো, হাভিয়ের মাচেরানো, লুকাস বিলিয়া, এভার বানেগার মতো খেলোয়াড়েরা।