আজ সিলেটসহ সারাদেশে কালবৈশাখীর সম্ভাবনা

আগামী ৭ থেকে ৮ ঘণ্টার মধ্যে সিলেটসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে কালবৈশাখীর সতর্কবার্তা দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

বৃহস্পতিবার (১০ মে) সকালে দেয়া এ সতর্কবার্তায় বলা হয় সিলেট, রাজশাহী, পাবনা, বগুড়া, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ, ঢাকা, ফরিদপুর, কুষ্টিয়া, যশোর, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা এবং চট্টগ্রাম অঞ্চলসমূহের উপর দিয়ে পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০-৮০ কি.মি. বা আরও অধিক বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে ঝড়ো বা দমকা হাওয়া বয়ে যেতে পারে। এসব এলাকার নদীবন্দর সমূহকে ২ নম্বর নৌ হুঁশিয়ারি সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

এদিকে, আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে রাজধানীর উপর বয়ে যায় কালবৈশাখী ঝড়। রাজধানী ১৪ মিলিমিটারের বেশি বেশি বৃষ্টিপাত হয় এসময়ে। দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ১০ থেকে ১৫ কিলোমিটার এবং অস্থায়ী দমকায় পশ্চিম বা উত্তর-পশ্চিম দিকে ঘণ্টায় ৪০ থেকে ৫০ কিলোমিটার গতিতে বাতাস বয়ে যায়। ঝড় ও বজ্রপাতে নিহতের ঘটনা ঘটে চট্রগ্রাম ও হবিগঞ্জে।

আবহাওয়াবিদ আয়েশা খানম জানান, আগামী তিনদিন সারাদেশে বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টির প্রবণতা অব্যাহত থাকতে পারে। এসময় বৃষ্টিপাত, বিজলী চমকানো ও বজ্রপাতের সম্ভাবনা বেড়ে যায়। বগুড়া, রংপুর, রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও টাঙ্গাইলসহ পার্শ্ববর্তী অঞ্চল এবং ঢাকা ও তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলসমূহে এসময় বজ্রপাত, শিলাবৃষ্টি, ভারী বৃষ্টিপাত ও কালবৈশাখী হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। সাধারণত এ মৌসুমে বিকেলের দিকে বজ্রমেঘ তৈরি হয়ে থাকে।

আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল, ঢাকা, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায় এবং রংপুর ও চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় অস্থায়ী দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া এবং বিজলী চমকানোসহ হালকা থেকে মাঝারী ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে দেশের কোথাও কোথাও মাঝারী ধরনের ভারী বর্ষণ ও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।