আগামীর সিলেট গড়তে আরিফের ‘দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা’

আগামীর সিলেট গড়তে ‘দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা’র কথা তুলে ধরেছেন বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার (২৬ জুলাই) বিকেলে নগরীর ঈদগাহ এলাকায় নিজের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণাকালে আরিফ তাঁর আগামীর পরিকল্পনার কথা জনগণের সামনে তুলে ধরেন।

এ সময় আরিফ বলেন- স্বল্প ও মধ্যমেয়াদী পরিকল্পনা বাস্তবায়ন অনেকটা সহজ হলেও দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা অনেক চিন্তার উপর নির্ভরশীল। আগামীর সিলেট কিংবা আজ থেকে ৩০ কিংবা ৫০ বছর পর জনগণ কিভাবে সিলেট নগরীকে দেখতে চায় তার চিন্তাভাবনা শুরু করা জরুরী।

তিনি বলেন- দৈনন্দিন নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করার পাশাপাশি সিলেট সিটি কর্পোরেশনকে সম্প্রসারণ করে আগামী প্রজন্মের সিলেট গড়ার লক্ষ্যে মনযোগী হতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

মেয়র প্রার্থী আরিফ বলেন- সবাই মিলে পরিকল্পনামাফিক কাজ করলে নতুন সিলেট গড়া সম্ভব। এই নতুন সিলেট হবে পরিচ্ছন্ন। থাকবে না কোনো যানজট। নতুন এ সিলেটে থাকবে মেট্রোরেল। থাকবে না তারের জঞ্জাল। তার যাবে আন্ডারগ্রাউন্ড দিয়ে। থাকবে খোলা উদ্যান। থাকবে বহুতল পার্কিংবিশিষ্ট ভবন। থাকবে ‘সিলেট টাওয়ার’, উঁচুতম এ স্থানকে কেন্দ্র করে তৈরি করা হবে অন্যরকম এক আবহ। যেখানে উপস্থাপিত হবে সিলেটের ঐতিহ্য-সংস্কৃতি।

সবার আন্তরিকতা ও ত্যাগের মানসিকতা থাকলে এমন স্বপ্নময় ‘আগামীর নতুন সিলেট’ গড়া সম্ভব বলে উল্লেখ করেন আরিফুল হক চৌধুরী।

এসময় বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান, বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা খন্দকার মুক্তাদির, কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুর রাজ্জাক, সিলেট জেলা বিএনপির সভাপতি আবুল কাহের শামিম, সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ, মহানগর বিএনপির সভাপতি নাসিম হোসাইনসহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।